Poonam Pandey Dies: কে পুনম পান্ডে? জানুন বলিউডের বিতর্কিত অভিনেত্রীকে
Poonam Pandey (Photo Credit: Instagram)

মুম্বই, ২ ফেব্রুয়ারি: শুক্রবার সকালে মৃত্যু হয় সোশ্যাল মিডিয়া স্টার পুনম পান্ডের (Poonam Pandey)।  জানা যায়, সার্ভিকাল ক্যানসারের প্রায় শেষ পর্যায়ে ছিলেন পুনম পান্ডে।  সেই কারণে চিকিৎসা শুরু হওয়ার পরও বাঁচানো যায়নি পুনম পান্ডেকে।  মাত্র ৩২ বছর বয়সেই চলে যান পুনম। যদিও ক্যানসারের চিকিৎসা শুরু হওয়ার পরও মনের জোর হারাননি অভিনেত্রী।  চিকিৎসকদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলছিলেন। তাও শেষরক্ষা হয়নি। পুনম পান্ডের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই তা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়।

পুনম পান্ডের মৃত্যুর পর অভিনেত্রীকে নিয়ে আগ্রহ দ্বিগুন হয়েছে নেটিজেনদের একাংশের। কে এই পুনম পান্ডে, জেনে নিন...

১৯৯১ সালের ১১ মার্চ উত্তরপ্রদেশের কানপুরে জন্ম হয় পুনম পান্ডের। পড়াশোনা শেষ করে মডেল হিসেবে নিজের কেরিয়ার শুরু করেন পুনম। বেশ কয়েকটি ম্যাগাজিনের জন্য ফটোশ্যুট করার পর ২০১৩ সালে নাশা নামে বলিউডের একটি ছবিতে অভিনয় করেন কানপুর-কন্যা। নাশা-তে পুনম একজন স্কুল শিক্ষিকার ভূমিকায় অভিনয় করেন। যাঁর সঙ্গে পর্দায় তাঁর ছাত্রের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নাশা মুক্তি পাওয়ার পর তা বিয়ে বিতর্ক দানা বাঁধতে শুরু করে। বেশ কিছু বিক্ষোভকারী নাশা পোস্টার ছিঁড়ে, এই ছবির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেন। যা ওই সময় পুনম পান্ডেকে আলোর বৃত্তে নিয়ে আসে বলিউডে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পুনম কার্যত তারকা। ২০১১ সালে ভারত ক্রিকেট বিশ্বকাপ জিতলে তিনি নগ্ন হবেন বলে জানান। তবে বিসিসিআইয়ের আপত্তিতে ওই সময় পুনম নিজের কথা রাখতে পারেননি। এরপর কলকাতা নাইট রাইডার্স আইপিএল জিতলে পুনমকে নগ্ন হতে দেখা যায়। এরপর পুনম একটি অ্যাপ লঞ্চ করেন কিন্তু গুগল তা বন্ধ করে দেয়। যা নিয়েও ওই সময় বেশ বিতর্ক হয়।

আরও পড়ুন: Poonam Pandey Dies: শেষ পর্যায়ে ছিল ক্যানসার, লড়াই চালিয়েও জীবন যুদ্ধে পরাজিত পুনম পান্ডে, চলে গেলেন নীরবে

নাশা-র পর পুনম পান্ডেকে হিন্দি, ভোজপুরী, তেলুগু-সহ একাধিক ভাষার ছবিতে দেখা যায়। ২০১৮ সালে কর্মা মুক্তি পায়। কর্মাই পুনমের শেষ ছবি। এরপর ফিয়ার ফ্যাক্টর, লক আপ, খতরো কী খিলাড়ি, বিগ বস-সহ বিভিন্ন রিয়্যালিটি শোয়ে দেখা যায় পুনম পান্ডেকে।

স্যাম বম্বে নামে এক ব্যক্তিকে বিয়ে করেন পুনম। ২০২০ সালে একেবারে গোপনীয়তায় মোড়া ছিল বিয়ের অনুষ্ঠান।  তবে স্যামের সঙ্গে বিয়ের পর গোয়ায় হানিমুনে গিয়ে স্বামী তাঁকে মারধর করেন বলেও অভিযোগ দায়ের করেন পুনম পান্ডে।  গোয়া পুলিশের কাছে ওই সময় সাহায্য  চান পুনম। পুলিশি সহায়তায় স্যামের সঙ্গে ফের সংসার শুরু করলেও, তা টেকেনি শেষ পর্যন্ত।

২০২০ সালে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই স্যাম বম্বের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় পুনম পান্ডের।  তবে জীবন থেমে থাকেনি।  এরপরও পুনম নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থেকেছেন।  সম্প্রতি মালদ্বীপে আর যাবেন না বলেও জানান পুনম পান্ডে।  লাক্ষাদ্বীপে এবার থেকে শ্যুট করবেন বলেও নিজের মনের ইচ্ছা প্রকাশ করতে দেখা যায় পুনম পান্ডেকে।