খাদ্য ভাণ্ডার বাড়ন্ত, খিদে মেটাতে এখন ম্যাগটই ভরসা
photo credit:Twitter

মাংস (Meat)না হলে মুখে খাবার রোচে না। এমন লোক কম নেই দেশে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে এখন ফ্রায়েড চিকেনের দোকান। এই হারে মাংস খেতে শুরু করেছে গোটা বিশ্ব। এই ভোজন বিলাস আর বেশিদিন থাকবে না। কারণ টান পড়তে শুরু করেছে মাংসের খাদ্য ভাণ্ডারে।

মাংসের জন্য যতই গরু (Cow), মোষ, মুরগি(Chicken), শুয়োর (Pig)চাষ হোক না কেন জনসংখ্যা যে হারে বাড়ছে তাতে খাবারে টান পড়ারই কথা। সেটাই হতে চলেছে।

এখন উপায়!‌ একটা তো উপায় বের করতেই হবে। সেই উপায় বের করেছেন কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা। তাঁরা মাংসের বিকল্প হিসেবে ম্যাগট বা একধরনের বিশেষ প্রজাতির কীটের কথা বলেছেন। যেটার সংখ্যা কোনও দিনই শেষ হবে না। আর মাংসে যে পরিমাণ প্রোটিন থাকে তার পুরোটাই এই ম্যাগটে রয়েছে। আক্ষরিক অর্থেই মাংসের বিকল্প হতে পারে এটি। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দাবি করেছেন চিকেন, মার্টন বা শুয়োর এবং গরুর মাংসের থেকে এই ম্যাগটই (Maggot) জনপ্রিয় করে তুলতে হবে। কিন্তু কাবাব, তন্তুরির জায়গায় খাবারের প্লেটে একরাশি কীট!‌ পছন্দ হবে তো?‌