অনাস্থা ভোট না হলে ইমরান খান আগাম নির্বাচনের ঘোষণা করতে পারেন
Imran Khan। (Photo Credits: IANS)

ইসলামাবাদ, ৩১ মার্চ: পাকিস্তান ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির ( Pakistan National Assembly) কার্যক্রম ৩ এপ্রিল রবিবার পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের (Imran Khan) পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সরকারের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবের উপরে আজও ভোটাভুটি হয়নি। বৃহস্পতিবার বিশেষ অধিবেশন শুরু হলে বিরোধীরা ভোটাভুটির দাবি জানায়। যদিও ডেপুটি স্পিকার রবিবার পর্যন্ত অ্যাসেম্বলির কার্যক্রম স্থগিত করে দেন।

এর আগে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব প্রত্যাহার করার শর্তে অ্যাসেম্বলি ভেঙে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ইমরান খান বলেছেন যে বিরোধীরা যদি তাঁর পরামর্শে রাজি না হয় তবে তিনি যে কোনও পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে প্রস্তুত। আরও পড়ুন: Sri Lanka: শ্রীলঙ্কায় আর্থিক দুর্দশা প্রায় চরমে, রাস্তার আলো নিভিয়ে বিদ্যুৎ সংরক্ষণ সিংহলীদের

এদিকে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির কার্যক্রম ৩ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত হয়ে যাওয়াতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিরোধী দলগুলি। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আগাম নির্বাচনের প্রস্তাব দিয়ে নিজের জন্য নিরাপদ প্রস্থান চেয়েছেন বলে দাবি করেছে পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ)। সামা টিভি জানিয়েছে, পিএমএল-এন-র শেহবাজ শরিফ (Shehbaz Sharif) এবং রানা সানাউল্লাহ বিরোধী সংসদীয় দলের বৈঠকে দাবি করেছেন যে ইমরান খান দেশের একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির মাধ্যমে এই প্রস্তাব দিয়েছেন। শরিফ বলেছেন যে প্রধানমন্ত্রী এখন এমন কিছু প্রস্তাব করছেন যা বিরোধীরা আগেই দাবি করেছিল, তবে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে।