Narendra Modi-Kamala Harris Meet: নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকে সন্ত্রাসবাদে পাকিস্তানের ভূমিকার প্রসঙ্গ তুললেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস
PM Narendra Modi and US Vice President Kamala Harris (Photo Credits: ANI)

ওয়াশিংটন, ২৪ সেপ্টেম্বর: মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের (Kamala Harris) সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। শুক্রবার হোয়াইট হাউসে (White House) মুখোমুখি হন তাঁরা। দীর্ঘক্ষণ তাঁদের মধ্যে আলাপচারিতা চলে। এই বৈঠকের বিষয়ে ভারতের বিদেশসচিব হর্ষ শ্রিংলা (Foreign Secretary Harsh V Shringla) জানান, দ্বিপাক্ষিক আলোচনাগুলি যথেষ্ট ফলপ্রসূ এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ ছিল। বৈঠকে জলবায়ু পরিবর্তন, সন্ত্রাসবাদ, সাইবার নিরাপত্তা, মহাকাশ এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। শ্রিংলা বলেন, যখন সন্ত্রাসবাদের (Terrorism) ইস্যু উঠে আসে, তখন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস নিজে থেকেই সেই বিষয়ে পাকিস্তানের ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। এই ধরনের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর জন্য পাকিস্তানের সমর্থনকে নিয়ন্ত্রণ করার এবং ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করার প্রয়োজনীয়তার দিকে ইঙ্গিত করেন।

হ্যারিস পাকিস্তানে সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর উপস্থিতির কথাও স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে শ্রিংলা। বিদেশ সচিব বলেন, মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট সীমান্ত সন্ত্রাসের বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে একমত হন এবং ভারত কয়েক দশক ধরে যে সন্ত্রাসবাদের শিকার, তা মেনে নেন হ্যারিস। আরও পড়ুন: Narendra Modi's USA Visit: মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন নরেন্দ্র মোদী, জানালেন ভারতে আসার আমন্ত্রণ

বৈঠকর পর কমলার প্রশংসায় মোদী টুইটে লেখেন, “আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট পদের নির্বাচনে আপনার লড়াই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক ঘটনা ছিল। আপনার কৃতিত্ব সমগ্র বিশ্বকে অনুপ্রাণিত করেছে। আমরা একাধিক বিষয় নিয়ে কথা বলেছি যা ভারত-মার্কিন বন্ধুত্বকে আরও শক্তিশালী করবে, যা মূল্যবোধ এবং সাংস্কৃতিক সংযোগের উপর ভিত্তি করে টিকে আছে। আমি নিশ্চিত যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও আপনার নেতৃত্বে দুই দেশের মধ্যযে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছবে।" সাংবাদিক সম্মেলনে মোদী বলেন, "ভারত ও আমেরিকা প্রাকৃতিক বন্ধু। আমাদের একই গুরুত্ব ও রাজনৈতিক স্বার্থ আছে। মূল্যবোধের ভিত্তিতে দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে।" কমলাকে ভারতে আমন্ত্রণ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, "আপনি আমেরিকায় যেরকম জয়লাভ করেছেন, ভারতীয়রা চান আপনি আমাদের দেশে গিয়েও সেই ধারা বজায় রাখুন। সকল ভারতীয়ই আপনার জন্য অপেক্ষা করছে, সেই কারণে আমি ভারত সফরে আসার জন্য আপনাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।”

পাল্টা কমলা বলেন, "আমি নিশ্চিত যে আমাদের দুই দেশের সম্পর্ক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও আপনার নেতৃত্বে নতুন পর্যায়ে পৌঁছবে। যখন ভারতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছিল, সেই সময় আমেরিকা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। আমি ঘোষণা করছি যে ভারত দ্রুত টিকা রফতানির কাজ শুরু করবে।"