Coronavirus Cases In West Bengal: একদিনে সর্বাধিক সংক্রমণ, রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা রোগী ৩ হাজার ৮০ জন
ভারতে করোনাভাইরাস (Photo Credits: Getty Images)

কলকাতা, ১৮ আগস্ট: দেশের করোনা পরিস্থিতি প্রতিদিন খারাপ হচ্ছে। সুস্থতার হার বাড়লেও নতুন করে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা (Coronavirus Cases In West Bengal) কিছুতেই কমছে না। করোনাভাইরাসের গ্রাসে প্রতিদিন প্রচুর মানুষ সংক্রামিত হচ্ছে। এরমধ্য়ে পশ্চিমবঙ্গের অবস্থা দুর্বিষহ। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে সর্বাধিক সংক্রামণের খবর মিলেছে, সংখ্যাটি ৩ হাজার ৮০। এর আগে একদিনে এত মানুষের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা এরাজ্যে ঘটেনি। গতকাল সারাদিনে ৪৫ জন করোনা রোগীর প্রাণ গিয়েছে। এদিনই নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যে কোভিড নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়িয়ে প্রায় ৩৪ হাজার করা হয়েছে এবং তা আরও বাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত রাজ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ১৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯১। আরও পড়ুন-Mamata Banerjee: মুখ্যমন্ত্রীর বড় ঘোষণা, তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের আগামী বছর জুন পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেবে সরকার, যৌনকর্মীদের জন্য রেশন ব্যবস্থা; পুলিশের জন্য তৈরি হবে ওয়েলফেয়ার বোর্ড

স্বাস্থ্য দপ্তরের সোমবার রাতের বুলেটিন অনুযায়ী, এ রাজ্যে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১ লক্ষ ১৯ হাজার ৫৭৮ জন। তার মধ্যে ৮৯ হাজার ৭০৩ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ফলে রাজ্যে এই মুহূর্তে সক্রিয় করোনা রোগী রয়েছেন ২৭ হাজার ৪০২ জন। এখনও পর্যন্ত ২ হাজার ৪৭৩ জন কোভিড রোগীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ হাজার ৯৩২ জন। ফলে সুস্থতার হার ছুঁয়েছে ৭৫.০২ শতাংশে। এটাও এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নবান্নে বলেন, বাংলায় করোনায় মৃত্যুহার ২ শতাংশের নিচে নেমেছে। কলকাতায় করোনার সংক্রমণ যেন মাত্রাছাড়া। এখনও পর্যন্ত সেখানে ৩২ হাজার ৮৬৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৫৪৮ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২৫ হাজার ৩৫০ জন। ৬ হাজার ৪২৪ জনের এখনও চিকিৎসা চলছে। শুধু কলকাতাতেই করোনায় প্রাণ গিয়েছে ১,০৯৩ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় শুধু কলকাতাতেই মারা গিয়েছেন ২৩ জন।

একইভাবে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যার নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে উত্তর ২৪ পরগনা। এই জেলায় এখনও পর্যন্ত ২৫ হাজার ২৪০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৫৬৯ জন। পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক হাওড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হগলিরও। মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দাবি, সম্প্রতি নোভেল করোনাভাইরাসের নতুন একটি প্রজাতি বা ‘স্ট্রেন’-এর সন্ধান পেয়েছে তারা, যা নাকি আক্ষরিক অর্থেই ‘সুপার স্প্রেডার’। জানা গিয়েছে, ‘সদ্য খোঁজ মেলা ‘ডি৬১৪জি’ নামের এই নতুন ‘স্ট্রেন’টি ১০ গুণ বেশি ছোঁয়াচে।’