তৃণমূলকে অস্বস্তিতে ফেলে জুনিয়র ডাক্তারদের মারধরের ঘটনায় ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ শাবা হাকিমের, কী বললেন মেয়রের মেয়ে?
শাবা হাকিম(Photo Credit: Facebook)

কলকাতা,  ১৩জুন : এনআরএসের (NRS) ঘটনায় এবার জুনিয়র ডাক্তারদের পাশে দাঁড়াতে দেখা গেল শাবা হাকিমকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো পোস্ট করে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দিলেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের (Kolkata Mayor Firhad Hakim ) এই মেয়ে। চিকিৎসক শাবা হাকিম তাঁর পোস্টে ডাক্তারদের হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। একইসঙ্গে তৃণমূল সমর্থক হিসেবে তিনি যে গোটা ঘটনায় লজ্জিত তা লিখতে ভুললেন না, কটাক্ষ করলেন তৃণমূল নেতার নিষ্ক্রিয়তা ও নীরবতার প্রসঙ্গে। শাবা হাকিমের (Doctor Shabba  Hakim) এহেন পোস্ট ঘিরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে বাবা ফিরহাদ হাকিম বা কন্যাকে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে দেখা যায়নি।

বুধবার রাতে ফেসবুক পোস্টটি করেছেন শাবা। প্রথমেই তিনি লিখেছেন— এই পোস্ট তাঁদের জন্য,  যাঁরা জানেন না যে সরকারি হাসপাতাল এবং বেশির ভাগ বেসরকারি হাসপাতালে ডাক্তাররা বহির্বিভাগ বয়কট করলেও জরুরি বিভাগে কাজ করছেন। শাবা লিখেছেন, ‘‘অন্যান্য পেশার মতো আমরা কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েই খালাস হতে পারি না কারণ দিনের শেষে আমাদের মানবিকতা রয়েছে। যদি একটা বাস বা ট্যাক্সি ধর্মঘট হত,  পরিস্থিতি যতই খারাপ হোক,  একজন ট্যাক্সিচালক বা বাসচালকও আপনাকে পরিষেবা দিতেন না।’’

রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের মেয়ে শাবা হাকিম কলকাতারই একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক। তিনি লিখেছেন, ‘‘যাঁরা প্রশ্ন তুলছেন, অন্য রোগীদের কী দোষ,  তাঁরা দয়া করে সরকারকে প্রশ্ন করুন, সরকারি হাসপাতালে মোয়াতেন থাকা পুলিশ অফিসাররা ডাক্তারদের রক্ষা করার জন্য কিছুই করেন না কেন? দয়া করে তাঁদের প্রশ্ন করুন যে, যখন দুটো ট্রাকে বোঝাই হয়ে গুন্ডারা এল, তখন অবিলম্বে আরও বাহিনী পাঠানো হল না কেন?’’

তবে শেষ লাইনে রীতিমতো গুঞ্জন তুলে দিয়েছেন মেয়র কন্যা। লিখেছেন,  ‘‘আমাদের নেতার নিষ্ক্রিয়তা এবং নীরবতায় একজন তৃণমূল সমর্থক হিসেবে আমি গভীর ভাবে লজ্জিত।’’ মেয়ের এই বক্তব্যে বা অবস্থানে কি ফিরহাদ হাকিমের অনুমোদন রয়েছে? বিষয়টি স্পষ্ট নয়।