TMC Martyrs’ Day 2021 Live:

কলকাতা, ২১ জুলাই:  তৃণমূলের ২১ জুলাইয়ের মঞ্চে বিস্ফোরক দলের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। দেশের গণতন্ত্র ধ্বংস করছে মোদী সরকার। মানবিকার জেনা না বিজেপি। এমন অভিযোগ  তোলেন দিদি। বক্তব্য রাখতে উঠে বিজেপির সরকারকে ফোন ট্যাপ থেকে কোভিড পরিস্থিতি, পেট্রোল ডিজেলের দাম নিয়ে জোর কটাক্ষ করলেন। মমতা  বললেন, আমার, আপনার সবার ফোন ট্যাপ। আমি ফোন করতে পারি না, তাই ফোনের  ক্যামেরায় প্লাস্টার করে রেখেছি। নিজের ফোন দেখি মমতা বলেন, "আমাদের ফোনে নজরদারি চলছে। আমি চাইলেও চিদম্বরম, শরদ পাওয়ার, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে পারছি না। ফোনে নজরদারি চালাচ্ছে। মন্ত্রীর ফোন, বিচারপতির ফোনে নজরদারি চলছে। পেগাসাস হল ফিরোশাস, ডেঞ্জারস।" আরও পড়ুন: মমতা ব্যানার্জির ভাষণের আগে তৃণমূলের নেতা-নেত্রীরা শহিদ দিবসের ভার্চুয়াল মঞ্চে কী বললেন

এবার বিজেপি সরকারকে প্লাস্টার করার সময় এসেছে। 'সরাসরি দেখুন মমতার ভাষণ--

মমতা বলেন, 'খেলা এখানেই শেষ নয়। খেলা চলবে, যতক্ষণ না দেশ থেকে বিজেপিকে সরানো হচ্ছে। বাংলার সব জায়গায় খেলা হবে। ১৬ অগাস্ট খেলা হবে দিবস পালন করব আমরা।' সঙ্গে মমতা অভিযোগ করেন, বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায়  তার অনুষ্ঠান দেখাতে বাঁধা দেওয়া হয়। মমতা বলেন, "আমাদের অনুষ্ঠান করতে দেয়নি।" ভোটপরবর্তী হিংসার সব অভিযোগ মিথ্যা বলে উড়িয়ে দেন। কোনও হিংসা হয়নি রাজ্যে। মানবাধিকারের রিপোর্ট ভিত্তিহীন। উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। গণতন্ত্রের বদলে গোয়েন্দাগিরি চলছে, অভিযোগ করলেন মমতা।

কোভিডে দেশের অবস্থাকে বিপর্যয় বলে মমতা বলেন, "গঙ্গায় মৃতদেহ ভাসছে আর প্রধানমন্ত্রী বলছেন উত্তরপ্রদেশ দেশের মধ্যে সেরা রাজ্য। একটুই লজ্জা নেই। টিকা নেই, ওষুধ নেই, অক্সিজেন নেই, মৃতদেহ সৎকার পর্যন্ত করতে দিতে হচ্ছে না। আমরা গঙ্গা থেকে তুলে সৎকার করেছি। খালি বড় বড় কথা। আপনার ব্যর্থতা চূড়ান্ত। আপনাদের জন্য ৪ লক্ষ লোক মারা গিয়েছে। দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণ কার যেত সঠিক সময় ব্যবস্থা নিলে। কিন্তু বাংলায় ডেইলি প্যাসেঞ্জারের মতে এসে গণতন্ত্র ধ্বংস করতেই ব্যস্ত ছিলেন আপনারা।"

মমতা বলেন, দু মাসে ৪৭ বার বেড়েছে পেট্রেলো-ডিজেলের দাম। মানুষকে হেনস্থা করছে। আমি চিদম্বরমজি, শরদ পওয়ারজির সঙ্গে কথা বলার উপায় নেই। ফোন ট্যাপ করছে। গরিব মানুষকে টাকা দেওয়ার বদলে আঁড়ি পাততে টাকা খরচ করা হচ্ছে। আপনার আমার সবার ফোন ট্যাপ করা হচ্ছে।