Mamata Banerjee: 'হিন্দু নয়, ঘৃণ্য ও কুৎসার ধর্ম তৈরি করেছে বিজেপি', ২১-র নির্বাচনের আগে উত্তরবঙ্গের মঞ্চ থেকে বিজেপিকে আক্রমণ মমতার
মমতা ব্যানার্জি (Photo Credit: Facebook)

শিলিগুড়ি, ১৫ ডিসেম্বর: ২১-র নির্বাচনের (2021 West Bengal Assembly Election) দামামা বেজে গিয়েছে। গত বেশ কয়েকটি নির্বাচনের পর একটা বিষয় স্পষ্ট, দক্ষিণবঙ্গের তুলনায় উত্তরবঙ্গে বিজেপির (BJP) দাপট অনেকটাই বেশি। বিজেপির সঙ্গে উত্তরবঙ্গের মজবুত গাঁটছড়া ভাঙতেই ময়দানে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। প্রশাসনিক কাজের পাশাপাশি দলীয় কর্মীদের আসন্ন ভোটের কথা স্মরণ করিয়ে চাঙ্গা করাই ছিল এদিন মমতার প্রধান উদ্দেশ্য। পড়ুন: Jitendra Tiwari to WB Government: রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে এবার ক্ষোভ উগরে দিয়ে ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি তৃণমূল বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারির

মঙ্গলবার জলপাইগুড়িতে আয়োজিত উত্তরবঙ্গের সভা থেকে নাম না করে বিজেপিকে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি বলেন, "ওরা বাংলায় নতুন ধর্ম এনেছে। যার নাম ঘৃণ্য ধর্ম। কুৎসার ধর্ম। হিংসার ধর্ম তৈরি করছে ওরা। মানুষের মধ্যে ভাগাভাগি করাই বিজেপির কাজ। বাংলার মেরুদণ্ড ধ্বংস করতে চায়। কিন্তু আমি বাংলাকে গুজরাত হতে দেব না। আমাকে আঘাত করলে প্রত্যাঘাত করবই।" পাশাপাশি তিনি দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, 'নতুন-পুরনো সকলে মিলে কাজ করুন। বাংলাই দেশকে পথ দেখাবে।'

নির্বাচন এগিয়ে এলেই গোর্খাল্যান্ডের ইস্যু খুঁচিয়ে তোলে বিজেপি। কিন্তু পাহাড়ে স্থায়ীভাবে রাজনৈতিক সমস্যা সমাধান করতে পারবে একমাত্র তৃণমূল কংগ্রেসই, দাবি মমতার। জলপাইগুড়ির জনসভায় এমনটাই দাবি তৃণমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জির। ২০২১-র এই লড়াইয়ে রাজ্যের সাধারণ মানুষকে পাশে চেয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। এরপর কেন্দ্রের একের পর এক প্রতিশ্রুতি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের এক লম্বা-চওড়া বিবৃতিও দেন মমতা। তিনি বলেন, "উত্তরবঙ্গের ৩৭০টি বাগানের চা শ্রমিককে পাকা বাড়ির প্রতিশ্রুতি। কোচবিহারে পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস তৈরি হচ্ছে। রাজবংশীদের উন্নয়নে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। দার্জিলিং, তরাই-ডুয়ার্স নিজেদের মতো ভাল রয়েছে। বন্ধ চা বাগানের শ্রমিকদের বিনামূল্যে ভাতা-রেশন দেওয়া হবে।"