Madan Mitra Hospitalised: শ্বাসকষ্টের জের, ভোররাতে এসএসকেএমে ভর্তি মদন ও শোভন
মদন মিত্র

কলকাতা, ১৮ মে: মাঝরাত থেকে শ্বাসকষ্ট শুরু হওয়ায় নারদা কাণ্ডে গ্রেপ্তার মদন মিত্রকে (Madan Mitra) ভোররাতে ভর্তি করা হল এসএসকেএম হাসপাতালে৷ অসুস্থ বোধ করায় একই সঙ্গে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ও৷ রাত ১টা বেজে ১০ মিনিটের পর নিজাম প্যালেস থেকে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই অসুস্থ বোধ করতে থাকেন মদন মিত্র৷ শুরু হয় শ্বাসকষ্ট৷ এরপর এসএসকেএমের উডবার্ন ওয়ার্ডে ভর্তি হন দুজনে৷ উডবার্ন ওয়ার্ডের ১০৩ নম্বর ঘরে ভর্তি রয়েছেন মদন মিত্র৷ অন্যদিকে ১০৬ নম্বর ঘরে ভর্তি আছেন শোভন৷ অসুস্থ বোধ করায় সুব্রত মুখোপাধ্যায়কেও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়৷ তবে ফের তাঁকে প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ আরও পড়ুন-Narada Scam Case: নারদা মামলায় জামিন পেলেন ফিরহাদ, মদন, শোভন, সুব্রত মুখোপাধ্যায়

গতকাল সকালে নারদা মামলায় এই চার নেতাকে তাঁদের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই৷ নিজাম প্যালেসে গোটাদিন আটকে রাখা হয়৷ খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে অবস্থান শুরু করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ প্রায় ৬ ঘণ্টা পর সেখান থেকে বেরোন তিনি৷ নিম্ন আদালতে জামিনও পেয়ে যান ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ তবে শেষরক্ষা হয়নি৷ সিবিআই হাইকোর্টে নিম্ন আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানায়৷ এরপর হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের রায়ে স্থগিতাদেশ দিলে চারজনেরই জেল হেফাজত হয়৷ আগামী বুধবার পর্যন্ত এঁরা প্রেসিডেন্সি জেলে থাকবেন৷ রাত একটা বেজে ১০ মিনিটে নিজেম প্যালেস থেকে যখন চারজনকে প্রেসিডেন্সি জেলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তখন সংবাদ মাধ্যমের সামনে আবেগ চাপতে পারেননি ফিরহাদ হাকিম৷ ধরা গলায় বলেন, “কলকাতার মানুষকে বাঁচাতে চেয়েছিলাম। আমাকে বাঁচাতে দিল না।”