Extra Marital Affair: তৃণমূলনেতা মেসোশ্বশুরের সঙ্গে পরকীয়ার জের, ২৫ বছরের স্ত্রীকে তালাক স্বামীর
Representational Image (Photo Credits: Pixabay)

ধুপগুড়ি, ৩ ডিসেম্বর: তৃণমূল নেতার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জের। ২৫ বছরের দাম্পত্যের ইতি টেনে স্ত্রীকে তালাক দিলেন স্বামী। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে  জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ির  গাদাং পঞ্চায়েত ভোটপাড়া এলাকায়।  মহিলার নাম মরিফা খাতুন ২৫ বছর আগে ভোটপাড়ার রবিউল ইসলামের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। তাঁদের দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।  জানা গেছে গত বছর কয়েক ধরেই স্থানীয় তৃণমূল নেতা সাহানতুল্লার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে রয়েছেন মরিফা খাতুন। ওই তৃণমূল নেতা আবার সম্পর্কে রবিউল ইসলামের মেসোমশাই। অর্থাৎ মরিফা খাতুনের মেসোশ্বশুর।  এই পরকীয়ার খবর প্রকাশ্যে আসতেই দুই পরিবারের মধ্যে গোলযোগ বাঁধে। সেসময় সালিশি ডেকে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া হয়। আরও পড়ুন-Coronavirus Cases India:ওমিক্রন আতঙ্কের মধ্যেও নিয়ন্ত্রণে কোভিড সংক্রমণ, অ্য়াক্টিভ কেস ৯৯,৯৭৬টি

মনে করা হয়েছিল, মরিপা ও সাহানাতুল্লার সম্পর্কের ইতি ঘটেছে। তবে তা য়ে সত্যি নয়, সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি দেখলেই বোঝা যাচ্ছে। যেখানে মরিফা ও সাহানাতুল্লাকে বেশ ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা গেছে। এই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই রেগে আগুন রবিউল ইসলাম। গ্রামের বিশিষ্টজনেদের সামনে তিনি স্ত্রীকে তালাক দেন। যদিও সেই তালাকের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এদিকে তালাকের খবর পেয়ে বেশ খুশি মরিফা কাতুন সাফ জানিয়েছেন, স্বামী রবিউলকে তাঁর ভাল লাগত না। এবার সাহানাতু্ল্লার সঙ্গে সুখে ঘরকন্না করতে পারবেন। কারণ বেশ কিছুদিন হল তাঁরা বিয়ে করেছেন। আসলে সাহানাতুল্লা যেহেতু তৃণমূল নেতা, তাই তাঁর রাজনৈতিক কেরিয়ারে কালি লাগাতেই এসব করা হচ্ছে। এমন চলতে থাকলে, তিনি আনের দ্বারস্থ হওয়ারও হুমকি দেন।