বর্ধমান রেলস্টেশনের নাম বদল, স্বাধীনতা সংগ্রামীর নাম পাচ্ছে বর্ধমান স্টেশন
বর্ধমান রেলস্টেশনের নাম বদল। প্রতীকী চিত্র। (Photo Credits: PTI)

নয়া দিল্লি, ২১ জুলাই:  Barddhaman Railway Station Name Change। হাওড়া, শিয়ালদহ, খড়গপুর -এর পর পশ্চিমবাঙলার অন্যতম জনপ্রিয় রেল স্টেশন বর্ধমানের নাম পরিবর্তন হতে চলেছে। বহু পুরনো ঐতিহ্যবাহী বর্ধমান রেল জংশন স্টেশনের নতুন নামকরণের কথা জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। শনিবার, তিনি জানান, বর্ধমান স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে রাখা হবে স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্ত (Batukeshwar Dutt)-র নামে। বর্ধমানেই জন্ম বটুকেশ্বর দত্তের।

গতকাল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের পাটনার বাড়ি ঘুরে দেখে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, ''বটুকেশ্বর দত্ত বর্ধমানের ভূমিপুত্র হলেও স্বাধীনোত্তর ভারতে তাঁর স্থায়ী বসতি ছিল বিহারের পাটনায়। সেই কথা স্মরণ করে এবং স্বাধীনতা সংগ্রামীর অবদানকে স্বীকৃতি দিতেই পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান স্টেশনের নাম বদলে রাখা হবে বটুকেশ্বর দত্ত।''

পরবর্তী সময়ে বিহারের জক্কনপুরে বসবাস করেন তিনি। তাঁর মৃত্যু-বার্ষিকীতে শনিবার জক্কনপুরে গিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তথা বিহারের বিজেপি প্রধান নিত্যানন্দ রাই। সঙ্গে ছিলেন বিজেপি নেতা শিবরাজ সিং চৌহান-ও। বটুকেশ্বরের মেয়ে ভারতী বাগচির সঙ্গে দেখা করেন তাঁরা।

বটুকেশ্বর দত্তের পরিচয়

১৯১০ সালে বর্ধমানের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে জন্মেছিলেন বটকেশ্বর দত্ত। পরাধীন ভারত স্বাধীন করার স্বপ্ন নিয়ে তিনি নাম লেখান বিপ্লবী দলে। যোগ দেন চন্দ্রশেখর আজাদের সংগঠন হিন্দুস্থান সোশ্যালিস্ট রিপাবলিকান অ্যাসোসিয়েশন-এ। পরে দিল্লিতে তিনি ভগৎ সিংয়ের সঙ্গে এক হয়ে জড়িয়ে পড়েন সশস্ত্র বিপ্লবে। ভগত্ সিংয়ের সহযোগী হয়ে হামলা চালান দিল্লির ন্যাশনাল অ্যাসম্বলিতে। এর পর ব্রিটিশ পুলিস হত্যায় অন্যতম অভিযুক্ত ভগত্ সিং-কে ফাঁসির সাজা দেওয়া হয়। বটুকেশ্বরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। স্বাধীনতার পর পটনায় গিয়ে বসবাস শুরু করেন। ১৯৬৫ সালে দিল্লির এইমস-এ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিপ্লবী বটুকেশ্বর।