Bankura: একই দিন টিকার ডবল ডোজ দেওয়া বাঁকুড়ার গৃহবধূকে ভর্তি করা হল হাসপাতালে
করোনা ভ্যাকসিন

বাঁকুড়া, ১৭ জুলাই: বাঁকুড়ায় (Baankura)  ভুল করে একই দিনে টিকার ডবল ডোজ দেওয়া হল এক গৃহবধূকে। বাঁকুড়ার রাজমাধপুর গ্রামে প্রান্তিক কৃষক পরিবারের বধূ মন্দিরা পালকে দশ মিনিটের মধ্যেই করোনা টিকার দুটো ডোজ দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। তারপর থেকে তাঁর জ্বর, বমি ও মাথা ঘোরার মতো উপসর্গ দেখা দিয়েছে শরীরে। এরপর আজ তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতেই হল। চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন, শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। আপাতত পর্যবেক্ষণের রাখা হয়েছে ওই মহিলাকে। কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা? পুরো ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর।

নির্দিষ্ট অ্যাপে নাম নথিভুক্ত করার পর ৯ মাসের সন্তানকে কোলে নিয়ে মন্দিরা পাল টিকাকরণ কেন্দ্র যান। তাঁর বাড়ি থেকে টিকা কেন্দ্র প্রায় চার কিলোমিটার দূরে। প্রথমে মন্দিরা নামের সেই গৃহবধূর বাঁ হাতে কোভিশিল্ডের প্রথম ডোজ দেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। প্রথম ডোজ দেওয়ার মিনিট দশেক পর, ফের তাঁর ফের বাম হাতেই কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ডোজও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

কিন্তু দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার সময় আপত্তি করলেন না কেন? যার উত্তরে মন্দিরার কথায় ধরা পড়ল টিকা নিয়ে অজ্ঞতার কথা। মন্দিরার দাবি তিনি জানতেন টিকায় দুটি ইঞ্জেকশন নিতে হয় বলে শুনেছিলেন। কিন্তু সেটা যে নির্দিষ্ট সময়ের ব্যবধানে, তা জানতেন না। কিন্তু পরে যখন শোনেন, বাকিদের একটি ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে, কিন্ত তাঁকে দেওয়া হয় দুটি ইঞ্জেকশন, তখনই তাঁর সন্দেহ জাগে। স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে বিষয়টি জানতে চাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে সবার মাথায় হাত পড়ে যায়। প্রসঙ্গত, ৬ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের মায়েদের করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছিল বাঁকুড়ার সেই গ্রামের টিকাকরণ কেন্দ্র।