ICC World Cup 2019: শিখর ধাওয়ান ছিটকে গেলেন, পরিবর্তে স্কোয়াডে ঢুকলেন ঋষভ পন্থ- এল সরকারি ঘোষণা-
File Image of Shikhar Dhawan (Photo Credits: Getty)

লন্ডন, ১৯ জুন: Shikhar Dhawan Ruled Out। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের পরই গত সপ্তাহে জানা গিয়েছিল আঙুলের চোটের কারণে আর চলতি বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন না শিখর ধাওয়ান। তবু সেঞ্চুরিয়ান ধাওয়ানকে অন্য স্পেলালিস্ট ডাক্তারদের নিয়ে দেখাবার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসার কথা টিম ইন্ডিয়ার ম্যানজেমন্ট জানিয়েছিল। যদিও ততক্ষণে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে ব্রেকিং নিউজ হয়ে গিয়েছিল-ধাওয়ানের বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গিয়েছে। সেই ব্রেকিং নিউজটা এতদিনে সরকারী মান্যতা পেল।

তার মানে দুটো ম্যাচ খেলে, একটা সেঞ্চুরি করেই শেষ হল ধাওয়ানের ২০১৯ বিশ্বকাপ। ধাওয়ানের মারাত্মক আঙুল চোটের স্ক্যান রিপোর্টে আশঙ্কার খবর আসার পরেই ঋষভ পন্থকে দেশ থেকে ইংল্য়ান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে আইসিসি নিয়ম অনুযায়ী, যেহেতু ধাওয়ানের চোটের জন্য ছিটকে যাওয়া ভারতীয় দল থেকে সরকারীভাবে জানানো হয়নি, তাই পন্থ দলের সঙ্গে থাকলেও খেলার সম্ভাবনা ছিল না। আরও পড়ুন- পাক বধের খুশিতে লন্ডনে একসঙ্গে বিরাট কোহলি-অনুষ্কা শর্মা, আফগান ম্যাচের আগে পরিবার নিয়ে ফুরফুরে মেজাজে রোহিত-ধাওয়ানরাও

এক সপ্তাহ ধাওয়ানের চোট পরীক্ষার পর টিম ম্যানেজমেন্ট তাঁকে বাকি বিশ্বকাপে পাওয়ার সম্ভবনা ছেড়ে দিল। আর তাই ধাওয়ানের বিশ্বকাপ শেষের সরকারী ঘোষণা করে, পন্থকে পরিবর্ত হিসেবে নেওয়া হল। তার মানে শনিবার বিরাট কোহলি চাইলে আফগানিস্তান ম্য়াচে ঋষভ পন্থকে প্রথম একাদশে দলে রাখতে পারবেন। যদিও চোট পাওয়া ভুবনেশ্বর কুমারের জায়গায় মহম্মদ সামিকে দলে নেওয়া ছাড়া, পাকিস্তান ম্যাচের উইনিং কম্বিনেশন টিম ইন্ডিয়া ভাঙবে না বলেই খবর।

গত রবিবার অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দুরন্ত সেঞ্চুরি করা শিখর ধাওয়ান বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলেন। অজি ম্যাচে ধাওয়ানের চোট পাওয়া বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলের স্ক্যানের পর দেখা যায় আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে তাঁর সেরে ওঠার সম্ভাবনা নেই। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ১১৭ রানের ইনিংসের পর আর মাঠে নামতে পারেননি ধাওয়ান। তাঁর জায়গায় পঞ্চাশ ওভারই ফিল্ডিং করেন রবীন্দ্র জাদেজা। আগামী বৃহস্পতিবার নটিংহ্যামে নিউজিল্য়ান্ডের বিরুদ্ধে ধাওয়ানের চোটে ব্যাক আপ হিসেবে পন্থ ইংল্য়ান্ডে এসে গিয়েছিলেন। কিউই ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ার পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ধাওয়ানের পরিবর্তে প্রথম একাদশে খেলেন বিজয় শঙ্কর। ওপেনার হিসেবে রোহিত শর্মার সঙ্গে দেখা যায় লোকেশ রাহুলকে।