Rohit Wishes Happy Unfriendship Day To Pollard: কাইরণ পোলার্ডকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিলেন রোহিত শর্মা, বন্ধুত্বে কি সত্যিই ফাটল ধরল?
(Photo Credits: YouTube)

নতুন দিল্লি, ২১ নভেম্বর: রোহিত শর্মার (Rohit Sharma) সঙ্গে কাইরণ পোলার্ডের (Kieron Pollard) বন্ধুত্ব সেই সময় থেকে শুরু যখন উভয় খেলোয়াড়ই প্রথমবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (Indian Premier League) মরশুমে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স (Mumbai Indians) শিবিরে হয়ে খেলেন। এমআই ডাগআউটে ৮ বছর কাটানো থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ট্যুরের সময় একে অপরের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়া পর্যন্ত, রোহিত এবং পোলার্ডের মধ্যে একটি বিশেষ বন্ধন রয়েছে। তবে তাঁদের ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব এখন শেষ হয়ে গেছে বলে মনে হয়েছিল। পোলার্ড টুইটারে রোহিতকে আনফলো করলে এই খবর ভাইরাল হয়ে যায়। দুই ক্রিকেটারের ভক্তদের পাশাপাশি অনেক আইপিএল অনুরাগী এই খবর শুনে মর্মাহত হন। তবে অবশেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের ভারত সফরের বিজ্ঞাপন দেখে তারা এবার হাসবে। ৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টি ২০ সিরিজ। ক্যারিবিয়ানদের সফরের আগে স্টার স্পোর্টস #আনফ্রেন্ডশিপ ডে ক্যাম্পেন শুরু করেছে।

রোহিতকে পোলার্ডের আন-ফলো করার খবর প্রথম যখন সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে তখন তা নিয়ে রীতিমতো ঝড় ওঠে। অনেক ভক্ত তাঁদের সবচেয়ে প্রিয় দুই ক্রিকেটারের মধ্যে কী ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে তা জানার চেষ্টা করেছিলেন। রোহিত এবং পোলার্ড কেবল ৮ বছর মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ড্রেসিংরুমে কাটাননি। গত আট বছরে দলকে চারটি আইপিএল খেতাবও জিতিয়েছেন। বিষয়টি অবশ্য কেবল রোহিত-পোলার্ড জুটির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। ডোয়েন ব্রাভো, ক্রিস গেইল, সুনীল নারাইন এবং আন্দ্রে রাসেলের মতো অনেক ক্যারিবিয়ান তারকা ভারতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন।

স্টারের প্রথম ভিডিওটিতে রোহিত এবং পোলার্ডকে গাড়িতে একসঙ্গে যেতে দেখা যাচ্ছে। রোহিত বিমানবন্দর থেকে পোলার্ডকে রিসিভ করে ভারতে স্বাগত জানালেন এবং তাঁকে গাড়িতে নিয়ে চলতে শুরু করেন। হঠাৎই কোনও রেডিও চ্যানেল রোহিতকে আসন্ন ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের কথা মনে করিয়ে দেয়। এরপর মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথা মনে করিয়ে দিয়ে রোহিত পোলার্ডকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিলেন। তারপর তাঁর ব্যাগ ফেলে দিয়ে চলে যান।