Sreesanth To Feature In Bollywood Movie: নতুন ভূমিকায় এস শ্রীসন্থ, এবার তাঁকে দেখা যাবে বলিউডের কমেডি সিনেমায়
S Sreesanth। (Photo Credits: PTI)

কোচি, ২১ এপ্রিল: এবার সিনেমায় অভিনয়ে (Acting) নামছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন পেসার এস শ্রীসন্থ (S Sreesanth)। গত মাসে তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। জানা যাচ্ছে, বলিউডের সিনেমা 'আইটেম নম্বর ওয়ান'-এ (Item Number One) অভিনয় করছেন শ্রীসন্থ। এই সিনেমাটির পরিচালনা করছেন পালুরান (Paalooran)। অভিনয়ের পাশাপাশি শ্রীসন্থ সিনেমার একটি গানও গাইবেন। কোচির একটি স্টুডিওতে রেকর্ডিং শুরু হয়েছে। গানটিতে সুর দিয়েছেন সজীব মঙ্গলথ (Sajeev Mangalath)।

সিনেমায় অভিনয় ও গান গাওয়ার বিষয়ে প্রাক্তন ক্রিকেটার বলেন, "আমি সত্যিই সম্মানিত। এনএনজি ফিল্ম, বিশেষ করে পালুরান, এবং সঙ্গীত পরিচালক সজীবকে ধন্যবাদ। এটি আমার প্রথম হিন্দি প্রজেক্ট। যেখানে আমি একটি গান গাইব এবং নাচব। আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ যে পরিচালকদের পাশাপাশি কেরালার সমস্ত লোক সত্যিই আমাকে সমর্থন করছে, বিশেষ করে আমার অবসরের পরে। আমি কোনও শৈল্পিক পরিবার থেকে আসিনি, এটা আমার পেশা নয়, তবে আমি এই পেশায় শতভাগ দেব। আমি বিশ্বাস করি যে আমি আরও অনেক ভাল করতে পারব।" আরও পড়ুন: Kieron Pollard: আইপিএলের মাঝেই অবসর ঘোষণা কায়রন পোলার্ডের

চলচ্চিত্রে তাঁর ভূমিকা সম্পর্কে প্রাক্তন পেসার বলেছিলেন যে তিনি সত্যিই উত্তেজিত কারণ তিনি এর আগে কোনও ছবিতে নাচ করেননি। শ্রীসন্থ বলেন, "এই চলচ্চিত্রে আমি একটি ভাল চরিত্রে অভিনয় করছি। মানুষ আমাকে রিয়েলিটি শোতে নাচতে দেখেছে। কিন্তু এটি একটি নাচ-ভিত্তিক কমেডি সিনেমা। এটিতে শেষ পর্যন্ত সাসপেন্স এবং দুর্দান্ত ক্লাইম্যাক্স রয়েছে। আমি সত্যিই মুখিয়ে আছি। আমি আমার তামিল সিনেমাতেও নাচ করিনি। এই কারণে আমি সত্যিই উত্তেজিত। এটা আমার জন্য একটি আকর্ষণীয় এবং চ্যালেঞ্জিং ভূমিকা।" শ্রীসন্থ আরও বলেছিলেন যে তিনি ক্রিকেট ম্যাচে ধারাভাষ্যও করবেন। তবে তার প্রধান মনোযোগ লিগ ম্যাচ খেলা এবং সিনেমা করা। তিনি বলেন, "আমাকেও কমেন্টারির জন্য যোগাযোগ করা হয়েছে। আমি এর মধ্যে এটি করব। তবে আমার ফোকাস থাকবে লিগ ম্যাচ খেলা এবং যতটা সম্ভব সিনেমা করা। আমি সব কিছুতেই আমার সেরাটা দিতে চাই।"

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার জন্য ২০১৩ সালে শ্রীসন্থকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল বিসিসিআই। ২০১৯ সালে সেই নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে সাত বছর করা হয়েছিল, যা ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে সম্পূর্ণ হয়েছিল। নিষেধাজ্ঞা ওঠার পরে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির জন্য ২০ সদস্যের কেরালা দলে ছিলেন তিনি।