Dehradun Cricket Coach: নাবালিকা খেলোয়াড়দের যৌন হেনস্থার অভিযোগ, মামলা দায়ের দেরাদুনের ক্রিকেট কোচের বিরুদ্ধে
প্রতীকী ছবি (Photo Credit: Pixabay)

দেরাদুন: ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন কোচ (Indian Women Cricket Team former Coach) ও দেরাদুন ক্রিকেট অ্যাকাডেমির (Dehradun Cricket academy) কোচ নরেন্দ্র শাহের (Narendra Shah) বিরুদ্ধে নাবালিকা খেলোয়াড়দের (Minor cricketers) শ্লীলতাহানি (molestation) ও যৌন হেনস্থা (sexual harassment) করার পাশাপাশি জাত তুলে কথা (casteist slurs) বলার অভিযোগে পকসো আইনে (Pocso Act) মামলা দায়ের হল। তাঁর বিরুদ্ধে দেরাদুন ক্রিকেট অ্যাকাডেমির তিন জন মেয়ে এই অভিযোগ এনেছে। তার ভিত্তিতেই পকসো আইন-সহ ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে এই অভিযোগ ওঠার পরেই নরেন্দ্র শাহকে অ্যাকাডেমির কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ্য়ে আসে, তাতে ক্রিকেট অ্যাকাডেমির এক ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেওয়া ও তার সম্প্রদায় নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করতে শোনা যায় নরেন্দ্র শাহকে। বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই গত শুক্রবার বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন অভিযুক্ত নরেন্দ্র। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যেই তাঁর নামে যৌন হেনস্থা ও বিতর্কিত মন্তব্যের বিষয়ে মামলা দায়ের করে তিন নাবালিকা খেলোয়াড়। বর্তমানে অভিযুক্ত ওই কোচ হাসপাতালে গুরুতর অবস্থায় থাকার জন্য এই বিষয়ে তাঁর বয়ান নথিভুক্ত করতে পারেনি পুলিশ।

এপ্রসঙ্গে দেরাদুনের এসএসপি দালীপ সিং কুনওয়ার বলেন, "সমস্ত অভিযোগগুলির প্রমাণ খোঁজার জন্য তদন্ত শুরু করেছি আমরা। ভাইরাল অডিও ক্লিপটির সত্যতা জানানোর চেষ্টা চলছে। এই বিষয়ে যারা যুক্ত রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।"

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত সোমবার শাহের অ্যাকাডেমিতে প্রশিক্ষণরত ১৫ বছরের এক নাবালিকা ক্রিকেটারের বাবা নেহেরু কলোনি পুলিশ স্টেশনে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তাতে তিনি অভিযোগ করেছেন যে তাঁর মেয়ে একাধিকবার শ্লীলতাহানি ও যৌন হেনস্থা করেছে নরেন্দ্র। এর পাশাপাশি তাঁদের সম্প্রদায় সম্পর্কে উল্টোপাল্টা কথাও বলেছে।