যুব সমাজ থেকে অপরাধকে দূরে রাখতে গান গাইছেন হায়দরাবাদের পুলিশকর্মী নাগামাল্লু
ট্রাফিক পুলিশ কর্মী এ নাগামাল্লু,(Photo Credit: ANI)

হায়দরাবাদ, ১২ জুনজনগণকে দুষ্কর্মের ব্যাপারে সবসময় সচেতন করেন তিনি। অপরাধ থেকে সবাইকে বাঁচিয়ে রাখতে তিনি যেন ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। তিনি আর কেউ নন, হায়দরাবাদের এলবি নগরের ট্রাফিক পুলিশ (Telangana traffic cop) নাগামাল্লু (A Nagamallu)। অপরাধের ঘটনা নিয়ে গান বেঁধে নিজেই গাইছেন এই পুলিশকর্মী, যা যুবসমাজের কাছে সচেতনতার বার্তা হিসেবে পৌঁছাচ্ছে। নাগামাল্লুর এই কাজে শুধু তেলেঙ্গানার বাসিন্দারাই নন, খুশি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ। শোনা যাচ্ছে, তাঁর লেখা গান সাড়া পড়েছে রাজ্যের বাইরেও, সোশ্যাল মিডিয়ায়া উঠেছে প্রশংসার ঝড়।আরও পড়ুন- অশীতিপর বৃদ্ধার বাগানের ঘাস কেটে দিলেন পুলিশকর্তা, মার্কিন পুলিশের কাজে মুগ্ধ সোশ্যাল মিডিয়া

জানা গিয়েছে, ২০১২ সাল থেকে গান লিখে জনসচেতনতার কাজ করছেন নাগামাল্লু। সামাজিক সচেতনতা নিয়ে তাঁর লেখা সেই সব গান তিনি ছড়িয়ে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। তার পরই সে গুলিই এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে লোকের মুখে মুখে। তেলুগু ভাষায় লেখা তাঁর সেই গান তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রপ্রদেশের তেলুগুভাষী মানুষদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। শুধু তাই নয়, এই দুই রাজ্যের বাইরের মানুষও তাঁর এই উদ্যোগের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। এই প্রসঙ্গে নাগামাল্লুর বক্তব্য, “বিভিন্ন ধরনের অপরাধের উপর লেখা আমার গানগুলি,  এখনকার যুবসমাজ বিনোদন মাধ্যমে বেশি আকৃষ্ট। তাই আমার মনে হয়েছে সামাজিক ব্যধিগুলির মোকাবিলা করার জন্য সচেতনতা তৈরির এটাই শ্রেষ্ঠ উপায়।’’

গত সাত বছরে তিনি প্রায় ২০টি গান তৈরি করেছেন। তারপর সেই সব গান আপলোড করেছেন ফেসবুক, ইউটিউবের মতো সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। আর এই কাজে তাঁকে সাহায্যে করেছে ২১ জন যুবকের একটি দল। তাঁর আরও দু’টি গান খুব শিগির সোশ্যাল মিডিয়া কাঁপাতে আসছে। এদিকে নাগামাল্লুর এহেন জন সেচতনাতা মূলক কাজে খুশি সবাই, খুশি তিনি নিজেও। এমনিতেই পুলিশ সম্পর্কে আমাদের ধারণা অত্যন্ত খারাপ, বলা বাহুল্য পারিপার্শ্বিক অভিজ্ঞতাই সেই সংজ্ঞা তৈরি করে দিয়েছে। সেখানে নাগামাল্লু তো দৈত্য কূলে প্রহ্লাদের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন, এবিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই।