মা ঠাকুমার মাঝখান থেকে ঘুমন্ত শিশুকে নিয়ে পালাচ্ছে চোর, কী হল তারপর?(দেখুন ভিডিও)
চোর পালাচ্ছে দেখুন ভিডিও (Photo Credit: ANI)

চণ্ডীগড়, ১৮ সেপ্টেম্বর: ভয়ঙ্কর ঘটনা, রাতবিরেতে মায়ের পাশ থেকে ঘুমন্ত শিশুকে চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে গেল এক চোর। প্রচণ্ড গরম সহ্য করতে না পরে বাড়ির বাইরে খাটিয়াতে ঘুমনোর ব্যবস্থা করেছিল গোটা পরিবার। টেবিল ফ্যানও চলছিল। ঠাকুমা ও মায়ের মাঝখানে শুয়ে নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছিল বছর চারেকের একরত্তি। বাকি সদস্যরা ঘরেই ঘুমোচ্ছিলেন, তবে দরজা খোলা ছিল। রাত তখন দ্বিপ্রহর অতিক্রম করেছে সবাই ঘুমের দেশে তলিয়ে গিয়েছেন। একেবারে রাস্তা ঘেঁষা বাড়িটির উঠোন লাগোয়া এলাকাতেই অনেকগুলি চারচাকা পার্ক করানো ছিল। উঠোনে ছিল একটি স্কুটি। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের লুধিয়ানার ঋষিনগরে (Ludhiana’s Rishi Nagar)।

সংবাদ সংস্থা এএনআই একটি সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV footage) প্রকাশ্যে এনেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে গোটা পাড়া নিঃঝুম হয়ে আছে, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে পরম নিশ্চিন্তে উঠোনের খাটিয়ায় ঘুমোচ্ছে শিশু। চোর প্রায় নিঃশব্দে এলাকায় এলো, স্মার্টলি একটা ভ্যানকে ঠেলতে ঠেলতে সোজা ওই বিছানার পাশে রাখল। সঙ্গে থাকা কাপড় ভ্যানে সুন্দরভাবে বিছিয়ে দিল। তারপর ঘুমন্ত শিশুকে মা ও ঠাকুমার মাঝখান থেকে তুলে ভ্যানে শুইয়েও দিল। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই মা জেগে উঠে দেখলেন চোর সন্তানকে নিয়ে পালাচ্ছে। হুড়মুড়িয়ে খাটিয়া থেকে নেমে ঘুমন্ত বাচ্চাকে কোলে তুলে নিলেন। বেগতিক বুঝে তখনই ভ্যান চালিয়ে পিটটান দিল চোর। এদিকে চেঁচামেচিতে শাশুড়ির ঘুম ভেঙে গিয়েছে, তিনিও ভ্যানের পিছু নিলেন। বাড়ির বাকি সদস্যরাও বেরিয়ে এসে চোরকে ধরতে চলল। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিশ বাচ্চা চোরকে পাকড়াও করে। এখন কথা হচ্ছে চোর যদি নিঃশব্দে শিশুটিকে নিয়ে পালাতো তাহলে মায়ের কিছুই করার থাকত না। গোটা ঘটনায় ঋষিনগরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন প্রান্তেই শিশু চোরের (child-lifter) প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। গত সাত তারিখে দিল্লিতে দুটি পঋথক ঘটনায় শিশু চুরি করতে এসে ধরা পড়েছে তিন মহিলা। প্রথম ঘটনাটি পূর্ব দিল্লির পাণ্ডব নগরের। সেখানে শিশু চুরি করতে এসে হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় বছর ২৪-এর এক মহিলা। দ্বিতীয়টি স্থানীয় সঞ্জয় ক্যাম্প এলাকায় ঘটেছে। সেখানে বাচ্চা চোর সন্দেহে দুই মহিলাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চলতি মাসের শুরুতেই ঝাড়খণ্ডে শিশু চোর সন্দেহে এক বছর পঞ্চাশের ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর করেছে উত্তেজিত জনতা। অভিযোগ, আক্রান্ত ব্যক্তি স্থানীয় কাটি পাহাড়ি গ্রামে উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন। ঘোরাঘুরির কারণ জানতে চাওয়া হলে কিছুই বলতে পারেননি ওই ব্যক্তি। সেই সময় বাচ্চা চোর সন্দেহে স্থানীয়দের গণপিটুনিরস্বীকার হন তিনি। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে, সেখানে চিকিৎসা চালকালীনই ওই ব্য়ক্তির মৃত্যু হয়।