Paneer Ke Phool For Diabetes: ডায়াবেটিসের অব্যর্থ ওষুধ আয়ুর্বেদিক পনিরের ফুল
Paneer Ke Phool For Diabetes (Photo Credits : Social Media)

ডায়াবেটিস বা মধুমেহ এই রোগ আমাদের দেশের এক বিরাট সমস্যা। ডায়াবেটিস (Diabetes) হওয়া মানে হাজারও রোগ শরীরে বাসা বাঁধবে। তাই ডায়াবেটিস তাড়াতে রোগীকে হাঁটাহাঁটি করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। ডায়াবেটিস একাধারে হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়ায়। ওবেসিটির মতো সমস্যাকে বাড়িয়ে তোলে। তাই একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর খাদ্যাভ্যাস থেকে শুরু করে যাবতীয় সমস্ত শারীরিক ক্রিয়ার উপরে সুস্থ নিয়ন্ত্রণের কথা বলে থাকেন চিকিৎসকরা।

মধুমেহ কখনও একটি উপাদানে নির্মূল হতে পারে না। এই বিষয়টি সবসময় মাথায় রাখতে হবে। তবে আমাদের দেশের আয়ুর্বেদ শাস্ত্র সমস্ত কঠিন রোগকে সারিয়ে তুলতে যথাযথ ভূমিকা পালন করে থাকে। যেমন পনিরের ফুল মধুমেহ রোগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ। স্নায়বিক ক্লান্তি, অনিদ্রা, ডায়াবেটিস,  হাঁপানি দূর করতে এই ফুলের গুরুত্ব অপরিসীম। মিষ্টি স্বাদের পনির ফুল (Paneer Ke Phool ) সাধারণত পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও ভারতে পাওয়া যায়। প্রস্রাবের সমস্যা দূর করতেও এই ফুলের কার্যকারীতা প্রচুর।

ডায়েটিশিয়ান ঋতু অরোরার মতে, “এটি একটি ভেষজ যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত হয়। এটি শুধুমাত্র আমাদের কোষের ভিতরে ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা রাখে না; কিন্তু অগ্ন্যাশয়ের বিটা কোষ মেরামত করে যা ইনসুলিনের উৎপাদক। ডায়াবেটিস রোগীদের মধ্যে, ল্যাঙ্গারহ্যান্সের দ্বীপগুলিতে উপস্থিত বিটা কোষগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়; তাই টাইপ-২ ডায়াবেটিস রোগীর শরীর ইনসুলিন তৈরি করতে অক্ষম, এজন্য বাইরের উৎসের প্রয়োজন হয়। এখানেই পনির কে ফুল বা পনির ডোডা কাজে আসে। ৭-১০ টুকরা পনির কে ফুল সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখুন তারপর খালি পেটে পান করুন। এই নির্যাস পান করে এবং সঠিক সুষম ডায়েটে থেকে আমরা অবশ্যই ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি।”