COVID-19 May Affect Foetus: গর্ভাশয় সংক্রামিত না হলেও করোনার প্রভাব পড়বে ভ্রুণে, মার্কিন স্বাস্থ্য সংস্থা
Coronavirus (Photo Credits: IANS)

নিউইয়র্ক, ১৯ জানুয়ারি: করোনাভাইরাসের (COVID-19 ) প্রকোপ পড়তে পারে ভ্রুণের উপরে। তবে তাতে গর্ভাশয় সমক্রামিত না হলেও হতে পারে। মার্কিন মুলুকের জাতীয স্বাস্থ্য সংস্থার এক সমীক্ষায় এই প্রমাণ মিলেছে। ২৩ জন গর্ভবতী মহিলার উপরে গবেষণা চালানো হয়। যাঁদের মধ্যে ১২ জন ছিলেন কোভিড-১৯ পজিটিভ। আটজন উপসর্গহীন ও একজনের সামান্য উপসর্গ ছিল। বাকি তিনজন কোভিডে জর্জরিত। প্রসবের পরে বাচ্চা ও মায়ের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পরীক্ষার জন্য মায়ের রক্ত ও অ্যাম্বিলিকা কর্ডের রক্ত নেওয়া হয়। পরীক্ষার পরে জানা যায়, মায়ের সংক্রমণের জেরে শিশুর শরীরেও তার প্রভাব পড়েছে। আরও পড়ুন-Amul Pay Tribute to Tigress Collarwali: বাঘিনী কলারওয়ালিকে শ্রদ্ধার্ঘ্য আমুলের, (দেখুন ছবি)

এদিকে ডেল্টাকে ছাপিয়ে বর্তমানে উঠে আসতে শুরু করেছে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ। তবে আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে যতই বাড়ুক না কেন, ফেব্রুয়ারির মাঝ বরাবর ওমিক্রনের প্রভাব আরও জোরদার হবে। এমনকী, ১৫ ফেব্রুয়ারির আশপাশে ভারতে ওমিক্রনে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা সবচেয়ে বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সংবাদ সংস্থা আইএএনএসের সাক্ষাৎকারে  চিকিৎসক  শশাঙ্ক যোশী জানান, মুম্বই এবং দিল্লিতে যেভাবে ওমিক্রন ছড়াচ্ছে, তাতে পড়ছে

দক্ষিণ আফ্রিকার (South Africa) সংক্রমণের ছাপ। যা অত্যন্ত প্রবল গতিতে মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। ফলে মুম্বইতে (Mumbai)  ইতিমধ্যেই ওমিক্রন সংক্রমণ শিখর ছুঁয়েছে। তবে গোটা মহারাষ্ট্রে করোনার এই প্রজাতি ফেব্রুয়ারির মাঝ বরাবর শিখর ছুঁয়ে ফেলবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন শশাঙ্ক যোশী।

মহারাষ্ট্র (Maharashtra) শুধু নয়, গোটা ভারত জুড়েই ফেব্রুয়ারির প্রথম থেকে ওমিক্রন (Omicron)  সংক্রমণ প্রবল গতিতে হবে। ১৫ ফেব্রুয়ারিতে তা শিখর ছুঁয়ে ফেলবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন ওই বিশেষজ্ঞ। তবে আশার কথা, এপ্রিল মাসে হয়ত ওমিক্রন ভারতে গতি হারাবে। ফলে করোনার এই প্রজাতির থাবা এপ্রিল থেকে কমজোরি হতে পারে বলে আশঙ্কা লীলাবতী হাসপা