Ramadan 2019: এই নিয়ম মানলে রমজানে সুস্থ থাকবেন ডায়াবেটিক ও হৃদরোগীরা
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: Pixabay)

আর মাত্র পাঁচদিন তারপরেই শুরু হচ্ছে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের পবিত্র মাহে রমজান। রোজা রাখার অর্থ নির্জলা উপবাস। চলতি বছর বৈশাখ ও জৈষ্ঠের ভরা গরমে পড়েছে রমজান। তাই প্রত্যেক রোজাদারের জন্য কঠিন সময় হতে চলেছে আগামী ৩০টি দিন। এই সময় ডায়াবেটিস ও হৃদরোগীরা কীভাবে অসুস্থতা এড়িয়ে রোজা রাখতে পারবেন তানিয়ে চিন্তিত থাকেন। তাঁদের চিন্তা দূর করতেই যথাযথ পরামর্শ দিলেন রাজধানীর সাফি হাসপাতালের এন্ডোক্রিনোলজিস্ট ডঃ আলতমশ শেখ। কীভাবে রোজা করেও রক্তে চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রেখে হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখা যায় তার হদিশ পাবেন এই প্রতিবেদনে।

ডায়াবেটিসের(Diabetes) রোগীকে যদি সুস্থ রাখতে চান তাহলে রক্তের গ্লুকোজের পরিমাণকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। সেজন্য নিয়মিত ওষুধ খাওয়া জরুরি। এদিকে রোজার কারণে তো আর নির্ধারিত নিয়মে ওষুধ খাওয়া সম্ভব হয় না। তাই অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়, এই পরিস্থিতি এড়াতে চাইলে নিজেদের মতো করে রোজার মাসে(Fasting) ওষুধ খাওয়ার সময় নির্বাচন করুন। দেখবেন আর সমস্যা হচ্ছে না। ইফতারের সময় ভাজাভুজি, মিষ্টি, (Sweet Dish)ফাস্টফুড, পকোড়ার দিকে ফিরেও তাকাবেন না। এই সব লোভনীয় খাবারদাবার ডায়াবেটিক ও হৃদরোগীর (Heart Patient)জন্য বিষের(Poison) শামিল। সাধারণত, শাক সবজি, প্রোটিন ও ভিটামিন যুক্ত হালকা খাবার খান। মশলাদার তেল এবং চা কফির মতো পানীয় না খাওয়াই শ্রেয়।

দিল্লির লীলাবতী হাসপাতালের(Lilavati Hospital Delhi) হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ (Cardiologist Dr. Shahid Merchant)   ডঃ শহিদ মার্চেন্ট জানিয়েছেন, ওষুধের সময় রোজার রীতি অনুযায়ী বদলে নিলে হৃদরোগীরাও সুস্থভাবেই রমজান পালন করতে পারবেন। শুধু খাবারদাবারে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। আর রোজা তো আধ্যাত্মিক নিয়মে বাঁধা তাই এই উপবাস শরীরের জন্য ক্ষতি নয় সুফল ডেকে আনে। ওষুধ ও খাওয়াদাওয়া নিয়ম মেনে করুন সুস্থ থাকুন। আনন্দ ও সমৃদ্ধিতে কাটুক রমজান(Ramadan), রইল শুভেচ্ছা।