Christmas 2019: কলকাতার সাহেবপাড়া ছিল পার্কস্ট্রিট, তখন থেকেই বড়দিনে কলকাতার ঠিকানা মধ্য কলকাতার এই চৌহদ্দি
বড়দিনে কলকাতার ঠিকানা পার্কস্ট্রিট (Photo Credits: Wikimedia Commons)

কবি ভাস্করের প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে বঙ্গে প্রবেশ করেছে শীত (Winter)। তাপমাত্রার পারদ ১০ ডিগ্রিতে নেমে আজ মরশুমের শীতলতম দিন। কিন্তু খাতায়-কলমে শীতের অপেক্ষা না করেই কলকাতা মেতে উঠেছে উৎসবের আমেজে। চলতি সপ্তাহের শুরু থেকেই তাই বড়দিন-বড়দিন আমেজ মহানগরে। কেক, সান্তা পুতুল, উড়ন্ত বেলুন, আলো, বেলোয়ারি সাজ সব মিলিয়ে পার্কস্ট্রিট সেজে উঠছে বড়দিনের সাজে। বলা বাহুল্য, ২৫ ডিসেম্বরের কলকাতা মানেই 'পার্ক স্ট্রিট (Park Street)।'

বাঙালির তেরো পার্বণের কনসেপ্ট এখন বড়ই সেকেলে। ধর্ম নিজের কিন্তু উৎসব সকলের-এই ধারণায় বাঙালির উৎসবের লিস্টি এখন ফুলে-ফেঁপে উঠেছে। বড়দিন যদিও বহু দিন আগে থেকেই এই তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। তবু দিনে দিনে বাড়ছে হিড়িক। পুজোর সময় যেমন প্রতিমার কাঠামো, বাহারি খাবার তৈরি, পোশাক কেনা, আত্মীয় স্বজনের আনাগোনায় ব্যস্ত হয়ে ওঠে আমুদে জাতি। তেমনই বড়দিন আসন্ন হলেও কেক (Cake) তৈরি, ক্রিশমাস ট্রি ঘরে আনা কিংবা বড়দিনের আগের দিন জানালায় মোজা ঝোলানো সবটাই করা চাই জেনওয়াই বাঙালির। তাই সেজে উঠতে দেরি হয় না পার্ক স্ট্রিটেরও। বড়দিন মানেই কলকাতার ঠিকানা হয়ে যায় পার্কস্ট্রিট। কিন্তু পার্ক স্ট্রিটের এমন ঐতিহ্য কেন? জানা যায়, উনবিংশ শতাব্দীর গোড়ার দিক। কলকাতায় তখন ইংরেজ সাহেবরা গিজ গিজ করছে। অনেকে দু-তিন পুরুষ ধরে আছেন। পার্কস্ট্রিট তখন হয়ে উঠেছে অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের ঘরবাড়ি৷ কলকাতার সাহেবপাড়া বলতে তাই পার্ক স্ট্রিট৷ জনশ্রুতি আছে, বড়দিনে পার্কস্ট্রিট নাকি শ্যাম্পু দিয়ে ধোয়া হত। সাহেব আর মেমরা ফিটন গাড়িতে করে বিকেলে এই রাস্তা দিয়ে হাওয়া খেতে আসবেন বলে৷ মিস্টার এন্ড মিসেস ফ্ল‌ুরি আসেন কলকাতায় সুদূর ইংল্যান্ড থেকে। তাঁরা পার্কস্ট্রিটের এক কোনায় একটা বেকারি শপও খোলেন। কলকাতার সাহেবপাড়া যেহেতু পার্কস্ট্রিট, তাই বড়দিনে জমে উঠত মধ্য কলকাতার এই পাড়া। তখন থেকেই বড়দিনে কলকাতার ঠিকানা হয়ে ওঠে মধ্য কলকাতার এই চৌহদ্দি। আরও পড়ুন: Kolkata Book Fair: শুরু হচ্ছে কলকাতা বইমেলা, কবে থেকে জানেন?

পার্কস্ট্রিট, অ্যালেন পার্ক, সেন্ট পলস ক্যার্থিডাল প্রতি বছর সেজে ওঠে ২৫ ডিসেম্বরের অনেক আগে থেকেই। বড়দিনের (Christmas) অপেক্ষায় প্রহর গোনেন শহরবাসী। রংবাহারী আলো সাথে উৎসবের মেজাজে চিরকাল মেতে উঠতে ভালোবাসেন মহানগরবাসী। দেখতে দেখতে ২০১৯ শেষের পথে। সবমিলিয়ে, হাড়হিম ঠান্ডা, কেক-পেস্ট্রি আর পার্কস্ট্রিটে বড়দিনের সেলিব্রেশনের স্বাদ চেটেপুটে উপভোগ করতে চলেছে তিলোত্তমা। বছর শেষের ২৫-এর দিন গুনছে কলকাতা।