Fact Check: লকডাউনের সময়সীমা বাড়তে পারে! কী জানাল কেন্দ্র?
(Photo Credits: PTI)

নয়াদিল্লি, ৬ এপ্রিল: ২১ দিনের লকডাউন চলছে দেশজুড়ে। তারমধ্যেও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দেশজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৪,০০০। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা কমবেশি ৭০০। একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা ৩২, যা সর্বোচ্চ। এহেন পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাসের (Coronavirus Outbreak) সংক্রমণ রুখতে বাড়ানো হতে পারে লকডাউনের দিন। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ-সহ সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে এই একটাই বার্তা। সাধারণ মানুষের মনেও একটাই প্রশ্ন। তাহলে কী আরও বাড়তে চলেছে লকডাউনের  (Lockdown in India) মেয়াদ?  আরও পড়ুন: Narendra Modi To BJP Workers: বিজেপির ৪০-তম প্রতিষ্ঠা দিবসে কর্মীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ, দিলেন করোনার মোকাবিলায় ৫ টি আবশ্যিক কাজ

কেন্দ্রীয় সরকার এই সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়েছে। আগামী ১৪ এপ্রিলই লকডাউনের শেষদিন। এরপর আর মেয়াদ বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছে সরকার। এই বিষয়ে

টুইট করে পিআইবি। সেই টুইটে স্পষ্ট লেখা রয়েছে, ১৪ এপ্রিলের পর লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর কোনও সম্ভাবনাই নেই। ক্যাবিনেট সেক্রেটারি রাজীব গৌবাও এই ধরণের সোশ্যাল মিডিয়ার তথ্যকে 'মিথ্যে' বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়টি নিয়ে সরকার এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। যা আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে।

আজ অর্থাৎ সোমবার বিজেপি দলের ৪০-তম প্রতিষ্ঠা দিবস (BJP's 40th Foundation Day)। এইদিনটি উপলক্ষে সকল বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশে তিনি ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। বিজেপি প্রতিষ্ঠা দিবসে প্রধানমন্ত্রী বিজেপি কার্যকর্তারা করোনাভাইরাস লকডাউনের (Coronavirus Lockdown) মাঝে জাতির লোকদের জন্য কয়েকটি কাজ করার অনুরোধ করেন। দরিদ্রদের রেশন দিয়ে সহায়তা করা এবং কোনও দরিদ্র মানুষ যেন না খেয়ে থাকে। দ্বিতীয়টি, বাইরে সাহায্য করতে গিয়ে সকল কর্মীরা যেন মাস্ক পরে বের হন। তৃতীয়টি, প্রধানমন্ত্রী কার্যকর্তা একটি ধন্যবাদ অভিযান পরিচালনা করতে। তিনি বলেন, চিকিৎসক, নার্স, স্যানিটেশন কর্মী, পুলিশ, ব্যাংক, ডাকঘর, প্রয়োজনীয় পরিষেবাদিদের ধন্যবাদ জানাতে হবে। চতুর্থ বিষয়টি আরও বেশি লোককে 'আরোগ্য সেতু' অ্যাপটি সম্পর্কে সচেতন করা এবং পঞ্চমটি হ'ল প্রতিটি বিজেপি কর্মীকে কমপক্ষে ৪০ জনকে PM CARES তহবিলে অনুদান দিতে হবে।