Why Republic Day Is Celebrated: ২৬ জানুয়ারি কেন পালিত হয় গণতন্ত্র দিবস? জেনে নিন বিস্তারিত কারণ
Republic Day Parade (Photo Credits: ANI)

১৯৫০ সাল থেকে প্রতি বছর ২৬ জানুয়ারি দিনটি প্রজাতন্ত্র দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ১৯৪৭ সালের ১৫ অগাস্ট স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালন করা হয়, তবে এই দিনটি ভারতীয়রা ঠিক করেননি। লর্ড মাউন্টব্যাটন (Lord Louis Mountbatten) ১৫ অগাস্ট দিনটি দেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করে। দেশ স্বাধীন হলেও সংবিধান ছিল না কোনও ভারতের, এরপর ১৯৪৯ সালের ২৬ নভেম্বর নতুন সংবিধান (Constitution Of India) রচিত হয় এবং তা গৃহীত হয়। সংবিধান রচয়িতাদের হাত ধরেই ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের দিন স্থির হয়। ১৯২৯ সালে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু (Jawaharlal Nehru) 'পূর্ণ স্বরাজ' আনার কথা ঘোষণা করেছিলেন, রবি নদীর তীরে উড়ানো হয় পতাকা।

এরপর ১৯৩০ সাল থেকে ২৬ জানুয়ারিকেই স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালনের জন্য দিন স্থির হয়। এরপর ২০০ বছরের ইংরেজ শাসন ঘুচিয়ে ১৯৪৭-র ১৫ অগাস্ট দেশ স্বাধীন হলে ২৬ জানুয়ারির মাহাত্ম বদলে যায়। দিনটিকে জাতীর জনক মহাত্মা গান্ধী নাম দিয়েছিলেন, 'স্বতন্ত্রতা সংকল্প দিবস'। স্বাধীনতার আড়াই বছর পর দেশের সংবিধান রচিত হলে ১৯৫০-র ২৬ জানুয়ারি তা কার্যকর করা হয়। ভারত স্বাধীন হওয়ার পর সংবিধান সভার ঘোষণা করা হয়, দেশের রাজ্যের সভার নির্বাচিত সদস্যের দ্বারা সংবিধান সভার সদস্যদের নির্বাচন করা হয়।

ড: বি. আর আম্বেদকর, জওহরলাল নেহরু, ড: রাজেন্দ্র প্রসাদ, সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেল, মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ এই সংবিধান সভার সদস্য ছিলেন। দেশ স্বাধীনের ঠিক দু'সপ্তাহ পর ২৯ অগাস্ট ড: বি. আর আম্বেদকরের নেতৃত্বে সংবিধান তৈরির উদ্দেশে একটি খসড়া কমিটি তৈরি হয়। ১৯৪৭ সালের ৪ নভেম্বর ডঃ বি. আর আম্বেদকরের নেতৃত্বে খসড়া কমিটি সংবিধান সভায় খসড়া কমিটি সংবিধানের খসড়া জমা দেয়। ৩০৮ জন সদস্য ১৯৫০ সালের ২৪ জানুয়ারি সংবিধানের দুটি হস্তলিখিত কপিতে সাক্ষর করেন, এরমধ্যে একটি ছিল ইংরেজিতে এবং অপরটি হিন্দিতে। এরপরই ২৬ জানুয়ারি ভারতীয় সংবিধান কার্যকর হয়, দেশ সার্বভৌম গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।