Uddhav Thackeray Resigned: আস্থাভোটের আগেই মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা উদ্ধব ঠাকরের
Uddhav Thackeray (Photo Credit: PTI)

মুম্বই, ২৯ জুন: মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর (Maharashtra Chief Minister) পদ থেকে ইস্তফা দিলেন উদ্ধব ঠাকরে (Uddhav Thackeray)। এমএলসি পদ থেকেও পদত্যাগ করেছেন তিনি। আগামীকাল মহারাষ্ট্র বিধানসভায় আস্থাভোট (Trust Vote) হওয়ার কথা। তার আগেই মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন বাল ঠাকরের ছেলে। সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) আজ মহারাষ্ট্র বিধানসভায় (Maharashtra Assembly) আস্থা ভোটের অনুমতি দিয়েছে। কিন্তু আদালত বলেছে যে উভয় পক্ষের আপত্তি দাখিল করার জন্য দুই দিন সময় থাকবে এবং অনাস্থা ভোটের চূড়ান্ত ফলাফল রিট পিটিশনের ফলাফলের উপর নির্ভর করবে। মামলার পরবর্তী শুনানি ১১ জুলাই।

মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধে একনাথ শিন্ডের (Eknath Shinde) নেতৃত্বাধীন শিবসেনার প্রায় জনা চল্লিশের বিধায়ক (Shiv Sena Rebel MLAs) বিদ্রোহ করেন। তাঁরা সরকারের উপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা জানিয়ে রাজ্যপালকে চিঠিও লেখেন।রাজভবনে ওই ই-মেল যাওয়ার পরেই আসরে নামে বিজেপি। এতদিন তারা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছিল। বিজেপি নেতা ও রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিস রাজ্যপালের কাছে যান। উদ্ধব ঠাকরেকে তাঁর সরকারের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য যাতে ডাকা হয়, সেই আবেদন জানান তিনি। এরপরই মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি ( Bhagat Singh Koshyari) আগামীকাল বেলা ১১টায় রাজ্য বিধানসভায় উদ্ধব ঠাকরে সরকারকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ দিতে বলেন। বিধানসভার সচিবকে যার জন্য় বিশেষ অধিবেশন ডাকারও তিনি নির্দেশ দেন।  আরও পড়ুন: Udaipur Killing: কানাইয়ালালের খুনে অভিযুক্ত গাউস মহম্মদের সঙ্গে পাকিস্তানি চরমপন্থী যোগ, জানাল রাজস্থান পুলিশ

রাজ্যপালের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায় উদ্ধব ঠাকরে শিবির। বুধবার রাতে রাজ্যপালের জারি করা নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়। যদিও আজ দীর্ঘ সাড়ে তিন ঘন্টা শুনানির পর সেই আবেদন নাকচ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। বিচারপতি সূর্যকান্ত এবং বিচারপতি জেবি পাড়িয়ালার বেঞ্চ রাজ্যপাল নির্দেশিত নির্ঘণ্ট মেনেই আস্থাভোট করার নির্দেশ দেয়। এর পরেই ফেসবুক লাইভে এসে পদত্যাগের কথা জানান উদ্ধব। তিনি বলেন, "আমি একটি অপ্রত্যাশিত পদ্ধতিতে ক্ষমতায় এসেছিলাম এবং আমি একই পদ্ধতিতে বেরিয়ে যাচ্ছি। আমি চিরতরে দূরে যাচ্ছি না, আমি এখানেই থাকব, এবং আমি আবার শিবসেনা ভবনে বসব। আমি আমার সমস্ত লোককে একত্র করব। আমি মুখ্যমন্ত্রী এবং এমএলসি পদ থেকে পদত্যাগ করছি।"