Udaipur Tailor Murder: উদয়পুরের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের তদন্তভার গেল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার কাছে
Kanhaiya Lal Teli (Photo: Twitter)

নতুন দিল্লি, ২৯ জুন: রাজস্থানের উদয়পুরে (Udaipur) কানহাইয়া লাল তেলির (Kanhaiya Lal Teli) নৃশংস হত্যাকাণ্ডের তদন্তভার গেল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা বা এনআইএ (National Investigation Agency)-র কাছে। তদন্তভার নেওয়ার জন্য আজ জাতীয় তদন্ত সংস্থাকে (NIA) নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক (MHA)। মন্ত্রক জানিয়েছে, এই ঘটনায় কোনও সংগঠন ও আন্তর্জাতিক যোগের বিষয়টি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তদন্ত করা হবে।

গতকাল এক দর্জির হত্যাকাণ্ডে কেঁপে ওঠে রাজস্থান (Rajasthan)। সাসপেন্ডেড বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মার মন্তব্যকে সমর্থন করায় উদয়পুরের কানহাইয়া লাল তেলি নামে দর্জিকে নৃশংসভাবে খুন করা হয়। এছাড়াও খুনের ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করে দুই অভিযুক্ত। কানহাইয়ার মুণ্ডচ্ছেদ করার পর একটি ভিডিও পোস্ট করে আততায়ী রিয়াজ আখতারি এবং গোস মহম্মদ। সেই ভিডিওতে কানহাইয়ার শিরশ্ছেদের দায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং নূপুর শর্মাকেও খুনের হুমকি দেয় তারা। আরও পড়ুন: BJP: কাল আস্থা ভোটের আগে দলীয় বিধায়কদের মুম্বইয়ের তাজ হোটেলে জমায়েতের নির্দেশ বিজেপি-র

পুলিশ জানিয়েছে, গোস মহম্মদ ও রিয়াজ আখতারি কানহাইয়া লালের দোকানে খদ্দের সেজে ঢুকেছিল। তাদের তোলা একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে দর্জি একজনের শরীরের মাপ নিচ্ছেন। এরপর এক আততায়ী বড় ছুরি দিয়ে কানহাইয়া লালের  গলা কেটে ফেলে। পুলিশ জানায়, আততায়ীরা প্রথমে দর্জির শিরশ্ছেদ করার চেষ্টা করে, যদিও সেটা তারা পারেনি।

উদয়পুরে মালদাস স্ট্রিটে যে ঘটনা ঘটে, তার ভয়াবহতায় শিউরে উঠতে শুরু করেছেন মানুষ। ভয়ঙ্কর হত্যাকাণ্ডকে একটি সন্ত্রাসী ঘটনা হিসাবে বিবেচনা করা হচ্ছে এবং রাজস্থান জুড়ে এক মাসের জন্য বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে।