PM Narendra Modi on New India: নতুন ভারতে পদবী নয় নামই হবে যুব সমাজের পরিচয়,  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Photo Credit: ANI)

কোচি, ৩০ আগস্ট: নতুন ভারতের সূচনার মূল লক্ষ্যই হল নিজের পরিচয় তৈরি কর। পদবী নয় যুবকের নামেই তাঁকে চিনবে গোটা জগৎ। কোচিতে মনোরমা নিউজ কনক্লেভের (Manorama News Conclave) উদ্বোধনে সেকথাই মনে করিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন দিল্লি থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মালয়লম মনোরমা প্রাইভেট লিমিটেডের নউজ কনক্লেভ উদ্বোধন করেন তিনি। সেখানেই  বলেন, ‘এই নতুন ভারতের বিতর্ক কোচি থেকেই শুরু হয়েছিল। নতুন ভারতে দুর্নীতিকে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে নেওয়া যাবে না। সে যেখান থেকেই আসুক না কেন প্রতিযোগিতায় জিতে তাকে টিকে থাকতে হবে। ভারত সম্ভবত বিশ্বের মধ্যে বহু ভাষা সমৃদ্ধ একমাত্র দেশ। বিরাট একটা শক্তি। তবে সেই ভাষাও আজ ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করতে স্বার্থপরতায় পর্যবসিত হয়েছে। কিন্তু যে ভাষা শক্তি হতে পারতো তাই এখন কৃত্রিম দেওয়াল তৈরি করে বিভেদ বাড়াচ্ছে।’

গোটা ভারতকে ঐক্যবদ্ধ করতে তিনি ভাষাকেই শক্তি হিসেবে ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন। এই কাজে সংবাদমাদ্যমকে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানান প্রধানমন্ত্রী (PM Narendra Modi)। তিনি বলেন, ‘আমরা তো এভাবেও নতুন ভারত গড়ার কাজ শুরু করতে পারি। কোনও একটি নির্দিষ্ট শব্দকে ১০ থেকে ১২টি ভাষায় প্রকাশ করব। এমনভাবে অন্তত ৩০০টি শব্দ বছরে বিভিন্ন বাষায় অনুবাদ হয়ে প্রকাশিত হবে। তাহলেই একরাজ্যের মানুষ ভিন্ন রাজ্য়ের বাষা অনায়াসে শিখতে পারেবন। একবার ভাবুন তো কর্ণাটকের লোক বাংলা শিখছে। আবার একদল হরিয়ানার বাসিন্দা মালয়লম ভাষা শিখছেন। এভাবেই ভাষার বিভিন্নতায় যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। তা ঘুচতে সময় লাগবে না যদি এই পদক্ষেপ বাস্তবায়িত হয়। আমরা এই বিভেদ রোধের প্রথম পদক্ষেপ নিতে পারি তো?’ আরও পড়ুন-‘না খাউঙ্গা না খানে দুঙ্গা নীতি’ ব্যর্থ, প্রথম মোদি সরকারের আমলেই ৭১,৫৪৩ কোটির ব্যাংক জালিয়াতি হয়েছে, রিপোর্ট দিল রিজার্ভ ব্যাংক

নতুন ভারতের আলোচনা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী জানান, এই কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। আগে যদিও অসম্ভব বলেই মনে হত। হরিয়ানার সরকারি চাকরিতে দুর্নীতি হবে এটাই সকলে মনে করত। এখন কিন্তু মানুষ স্বচ্ছতা চাইছে। এখন একই ওয়াইফাইতে রেল স্টেশনে সকলে মিলে ইনর্টানেটে এনগেজ থাকছেন। একই সিস্টেমে সবাই এক হয়ে সুবিধা ভোগ করছে। বিভেদ ঘুচে এক দেশের তত্ত্বে ফিরছে ভারত।