গলি রাস্তায় যোগাসনে মগ্ন ৬ বৃদ্ধ,  পিষে দিল বেপরোয়া গাড়ি
প্রতীকী ছবি। (Image Credit: PTI)

ভরতপুর, ১২ জুলাই: দ্বায়িত্বজ্ঞান হীনতা কোন পর্যায়ে পৌঁছালে মানুষ এমন একটা নৃশ্ংস কাজ করতে পারে। ফের বেপরোয়া গতি কাড়ল প্রাণ। তবে এবার আর চালক বা আরোহী নয়, গতির বলে হলেন ছয় বৃদ্ধ। বাড়ি লাগোয়া গলি রাস্তায় আসন পেতে ব্যায়াম করছিলেন। বেপরোয়া গতি তাঁদের পিষে মারল। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের। গুরুতর আহত একজনকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা মৃত বলে ঘোষণা করেন। বৃহস্পতিবার সকালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের ভরতপুরের কুমার টাউনে। গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দারা, ঘাতক চালককে গ্রেপ্তারের দাবিতে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। আরও পড়ুন- খোলা ম্যানহোলে পড়ে নিখোঁজ একরত্তি, মুম্বইয়ে চাঞ্চল্য

ইতিমধ্যে এলাকার বাসিন্দা মৃতদের সনাক্ত করেছেন। তাঁদের নাম রঘুবীর সিং (৬২), প্রেম চাঁদ (৫৫), নরোত্তম লাল (৬৫), মাখন লাল (৬০), হরিরাম (৬৩) ও রামেশ্বর (৬১)।জেলার এসপি হায়দার আলি জাইদি জানিয়েছেন, জনবসতি এলাকার মধ্যেই একটা সরু গলি। তেমন গাড়ি চলাচল নেই। সেখানে রোজ সকালে হাঁটতেন ওই ছ’জন। মাঝে মাঝে আসন পেতে বসে যোগ ব্যায়ামও করতেন। বৃহস্পতিবার খুব ভোরে তাঁরা যোগাসন করছিলেন। সেই সময়েই ঘটে এই দুর্ঘটনা। এই ঘটনার পরেই রাস্তা আটকে বিক্ষোভ শুরু করেন এলাকার বাসিন্দারা। ধানওয়াড়া রোডে শুরু হয় অবরোধ। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মৃতদের মধ্যে একজনের আত্মীয় প্রেম চাঁদ বলেছেন, ‘‘প্রতিদিন ভোর ৫টার সময় মানুষগুলো রাস্তায় হাঁটতে যেতেন। ওই রাস্তায় গাড়িও তেমন চলে না। কোনও রকম ভাবে সতর্ক না করেই গাড়িটা পিষে দিয়েছে ওই বৃদ্ধদের। আমরা অপরাধীর শাস্তি চাই।’’ ঘাতক গাড়ি ও তার চালককে খোঁজা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, প্রতিদিন ভোরে কুমার টাউনের ধানওয়াড়া রোড সংলগ্ন এলাকায় রাস্তায় বৃদ্ধেরা জড়ো হতেন। তাঁদের সঙ্গে যোগ দিতেন এলাকার কিছু লোকও। এদিন  সরু রাস্তায় বেপরোয়া গতিতে ছুটে আসছিল গাড়িটা। রাস্তায় লোকজন দেখেও বিন্দুমাত্র গতি কমায়নি চালক। বরং বৃদ্ধদের উপর দিয়েই গাড়ি ছুটিয়ে চম্পট দিয়েছে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় পাঁচ জনের। হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে মৃত্যু হয় আরও একজনের।