Delhi: NRC ইস্যুতে সাংসদ মনোজ তিওয়ারিকে নিয়ে করা মন্তব্যের জেরে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বড় বিক্ষোভ, পুলিশের দ্বারস্থ বিজেপি
সাংসদ মনোজ তিওয়ারি ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। (Photo Credits: Facebook)

নয়া দিল্লি, ২৬ সেপ্টেম্বর: দিল্লি বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ মনোজ তিওয়ারিকে কটাক্ষ করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বিজেপির রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষ করে বলেছিলেন, "NRC হলে সবার আগে দিল্লি ছাড়া হবেন মনোজ তিওয়ারি।" অসমের মতো দেশের দিল্লিতেও এনআরসি চালুর দাবিতে কেন্দ্রকে চিঠি লিখেছিলেন। আর সেটাকে কটাক্ষ করে কেজরিওয়াল গতকাল ওই মন্তব্য করেছিলেন। যা নিয়ে আজ প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে বড় মাপের বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি। প্রসঙ্গত, বিহারের ভোজপুরী ভাষার জনপ্রিয় নায়ক মনোজ তিওয়ারি এখন দিল্লি বিজেপি-র সভাপতি। তাঁকে বহিরাগত বোঝাতে গিয়ে কেজরিওয়াল এমন মন্তব্য করেছিলেন।

গতকাল কেজরিওয়াল বলেছিলেন, "যদি দিল্লিতে NRC চালু হয়। সবার প্রথমে মনোজ তিওয়ারিকেই (Manoj Tiwari) দিল্লি ছাড়তে হবে।" গতমাসে দিল্লিতে অপরাধের বাড়বাড়ন্তের জন্য শরণার্থী উদ্বাস্তুদেরই দায়ী করে দিল্লির বিজেপির সভাপতি মনোজ তিওয়ারি বলেছিলেন, "দিল্লির পরিস্থিতি ক্রমশই বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়াচ্ছে। বেআইনি শরণার্থীরা এখানে ভিড় করছেন, তাঁরাই সবচেয়ে বিপজ্জনক।' তিওয়ারি আরও বলেন, "এখানে বসবাসকারী অবৈধ অভিবাসীরা সবচেয়ে বিপজ্জনক, আমরা এখানেও NRC চালু করব।" দিল্লিতে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা (Rohingya people) ও বাংলাদেশি বসতি স্থাপন করেছে বলেও দাবি করেন। আরও পড়ুন-মনমোহন সিং-র জন্মদিনে শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির

আগামী বছর দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন, তার আগে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে বড় বিক্ষোভের ইস্যু পেয়ে গেলেন মনোজ তিওয়ারিরা। লোকসভা নির্বাচন ২০১৯-এ দিল্লিতে সাতটি লোকসভা আসনের সাতটিতেই জেতে বিজেপি। রাজ্যের শাসক দল আম আদমি পার্টি-কে সরিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে কংগ্রেস। সেই হাওয়া বজায় রাখতে মরিয়া দিল্লি বিজেপি। যদিও ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে দিল্লিতে বিজেপি সাতটা লোকসভার সাতটিতে জিতলেও, পরের বছর বিপর্যয়ে ভরাডুবি হয়েছিল। এবার অবশ্য বিজেপি অনেকটা গুছিয়ে আগের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েই নামছে।