Kamal Haasan and Rajinikanth Hint at Joining Hands: তামিলনাড়ুর রাজনীতিতে ফ্লপের গেরো কাটাতে এবার জোটের ময়দানে কামাল হাসান ও রজনীকান্ত
কামাল হাসান ও রজনীকান্ত (Photo Credit: PTI)

নতুন দিল্লি, ১৯ নভেম্বর: সাম্প্রতিক সাধারণ নির্বাচন ও উপ নির্বাচনে হারের মুখ দেখার পর যেন চেতন ফিরল। একসঙ্গে কাঁধেকাঁধ মিলিয়ে রাজনীতির ময়দানে লড়ার অঙ্গীকার করলেন প্রখ্যাত দক্ষিণী অভিনেতা কামাল হাসান (Kamal Haasan) ও রজনীকান্ত (Rajinikanth)। থুড়ি শুধু দক্ষিণেই বা বলি কি করে বলিউডেও রাজ করেছেন এঁরা। কাকে ছেড়ে কার কথা বলি। অভিনয় দক্ষতায় কেউ কম যান না। ভেবেছিলেন সেলুলয়েডের কোটি কোটি সমর্থক রাজনীতির ময়দানেও তাঁদের সাদরে গ্রহণ করবেন, কিন্তু বাস্তবে তেমনটা ঘটল না। তামিলনাড়ুতে গত সাধারণ নির্বাচন ও উপনির্বাচনে ধুলোর মতো উড়ে গেলেন এই দুই অভিনেতা। এদিকে খ্যাতির কামড় ভোলেন কী করে। তাইতো জোটের স্বপ্ন দেখছেন দুজনে।

চলতি বছরে সংসদীয় উপ নির্বাচনে কামাল হাসানের এমএনএম কোনও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিতে পারেনি। এদিকে জনবল না থাকায় রাজনীতির ময়দানে কোনওরকম ছাপ রাখতে পারেননি রজনীকান্ত। যদিও ২০১৮-তেই হুংকার চেড়েছিলেন ২০২১-এ তামিলনাড়ুতে রাজ করবেন বলে। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে যা পরিস্থিতি তাতে রাজ করা দূরে যাক সমর্থক না থাকায় দলটার অস্তিত্বই বিলীন হয়ে যেতে পারে। বরং বিরোধীরা তো তাঁকে গেরুয়া শিবিরের সমর্থক হিসেবে দাগিয়ে দিয়েছে। এরপরেই প্রমাদ গোনেন বর্ষীয়ান অভিনেতা। নিজের রাজনৈতিক দল থাকা সত্ত্বেও বিজেপির চর এই অপবাদ তাঁর গায়ে লেগেছে। হিন্দুত্বের ব্র্যান্ডিং যে এত বড় বিপর্যয় আনতে পারে ভাবেননি রজনীকান্ত। আরও পড়ুন-TMC MP Mimi Chakraborty: লোকসভার শীতকালীন অধিবেশনে হিট মিমি, মাকে সংসদ চত্বর ঘুরে দেখানোর পাশাপাশি পথ কুকুরদের নিয়ে কী বললেন অভিনেত্রী?

এদিন কামাল হাসানকে সাংবাদিকদের বলতে শোনা যায়, চার দশকের অভিনয়ের বন্ধুত্ব এবার রাজনীতিতেও আসতে চলেছে। তামিলনাড়ুর উন্নতির স্বার্থে আবার আমরা একসঙ্গে পথ চলব। আমরা বলতে যে কামালহাসান রজনীকান্তকে বুঝিয়েছেন তা স্পষ্ট। পরে রজনীকান্তও কামাল হাসানের বক্তব্যকে সমর্থন করে এই বিষয়ে সিলমোহর দেন। তবে দুজনের যে ভিন্ন রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি তা জোটে থেকেও বজায় রাখার কখা বলেছেন দুই অভিনেতা। বাকিটা না হয় ভবিষ্যৎ বলবে, যার চাবিকাঠি রয়েছে তামিলনাড়ুর আমজনতার হাতে।