PM Narendra Modi: তৃতীয় দফার লকডাউন শেষে কী করে সচল হবে অর্থনীতি? সোমবার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে নরেন্দ্র মোদি
নরেন্দ্র মোদি (photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ১১ মে: দেশে তৃতীয় দফার লকডাউন শেষ হতে হাতে এখনও এক সপ্তাহ সময় রয়েছে। এর মধ্যেই দেশে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করতে কাজ শুরু করে দিয়েছে রেলমন্ত্রক। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতেই থমকে গিয়েছে দেশ। টানা লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি। এবার মুখ থুবড়ে পড়া অর্থনীতিকে সচল করতেই সোমবার বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছাড়পত্রের পাশাপাশি, আর্থিক প্যাকেজ এবং কৃষি-বিদেশি লগ্নি-খনির মতো বেশ কিছু ক্ষেত্রের আর্থিক সংস্কার নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হতে পারে হতে পারে বলে খবর।  চলতি সপ্তাহে ‘স্টিমুলাস প্যাকেজ’ ঘোষণা হতে পারে। করোনা পরিস্থিতিতে একাধিক আন্তর্জাতিক সংস্থা চিন থেকে তাদের লগ্নি প্রত্যাহারের বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করছে।

এই সংস্থাগুলিকে নিজেদের রাজ্যে টানার জন্য সক্রিয় হতে আগের বৈঠকেই রাজ্যগুলিকে বলেছিলেন মোদী। চলতি সপ্তাহে যে-প্যাকেজ ঘোষণা হতে পারে, তাতে আর্থিক সংস্কার, ব্যবসার পরিবেশ সহজ করতে বেশ কিছু ঘোষণার পাশাপাশি ছোট-মাঝারি শিল্পের জন্য নগদ পুঁজির জোগান, ঋণের গ্যারান্টির তহবিলের মতো সুরাহাও থাকতে পারে। রাজ্যগুলিও কেন্দ্রের কাছে আর্থিক সাহায্যের দাবি তুলছে। সোমবার বিকাল তিনটেয় মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে পঞ্চম দফায় বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী। তৃতীয় দফার লকডাউন কি আদৌ উঠবে ১৭ তারিখ? লকডাউনের বিকল্প হিসাবে অন্য কোনও পথ বাছা সম্ভব? যদি তা সম্ভব তা কতটা কার্যকরী হবে, সেসব নিয়ে আলোচনা হবে। আরও পড়ুন- COVID-19 Cases In India: রবিবার নতুন করে আক্রান্ত ৪ হাজার ২১৩ জন, দেশে মোট কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগী ৬৭ হাজার ১৫২

রবিবারই সমস্ত রাজ্যের মুখ্যসচিবদের সঙ্গে বৈঠক সারেন ক্যাবিনেটসচিব রাজীব গৌড়া। এই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। এছাড়া স্বরাষ্ট্র ও স্বাস্থ্যসচিব সহ অন্যান্য আধিকারিকরাও থাকবেন বৈঠকে। আলোচানার তালিকায় রয়েছে, ধাপে ধাপে লকডাউন তোলা।পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানো।দেশের কোন অঞ্চলগুলিতে বিধি-নিষেধ শিথিল করা যাবে। কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যায় বদল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে কিনা। ১৭ তারিখের পর কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া সম্ভব কিনা। অর্থনীতিকে আরও সচল করতে আর কী কী পন্থা নেওয়া যেতে পারে, বৈঠকে আলোচনা হতে পারে তা নিয়েও।