NDA Seat Sharing: মারাঠা ভূমে আসন সমঝোতা যেন 'বাঁদরের পিঠেভাগ'! রামদাসের জেদে বিজেপি আরও চিন্তায়
Photo Credits: ANI

মহারাষ্ট্রে বিজেপির এবার সবচেয়ে বড় মাথাব্য়থা আসন সমঝোতা। একদিকে একনাথ শিন্ডের শিবসেনা, তো অন্যদিকে অজিত পাওয়ারের এনসিপি। সবাই নিজেদের দলে নেতাদের ধরে রাখতে বেশী আসনে লড়তে চাইছে। এদিকে, বিজেপির পক্ষে কিছুতেই বেশী আসন ছাড়া সম্ভব নয়। তার মধ্যে আবার অন্তত ৬-৭টি আসনে তিনটি দলের প্রার্থী দেওয়ার পিছনে যুক্তিসঙ্গত কারণ থাকছে। এরই মধ্যে আবার বেঁকে বসেছেন মহারাষ্ট্র রাজনীতির বিনোদনী চরিত্র রামদাস আতওয়ালে।

রিপাবলিক পার্টি অফ ইন্ডিয়া-র প্রধান রামদাস সাফ কথা, তার দলকে অন্তত দুটি আসনে লড়তে দিতেই হবে। এই নিয়ে তিনি জেপি নাড্ডা, অমিত শাহ ও দেবেন্দ্র ফদনবিশের সঙ্গে কথা বলেছেন বলে রামদাস জানিয়েছেন। তাঁর দলের ওবিসি সম্প্রদায়ের মধ্যে রাজ্যের অন্তত ৫টি লোকসভা আসনে ভাল প্রভাব রয়েছে। তবে বিজেপির পক্ষে তার দাবি মানা কঠিন। রামদাসকে একটি আসন ছেড়ে, আগামী দিনে রাজ্যসভায় আসন দেওয়া হবে বলে গেরুয়া শিবিরের কাছ থেকে প্রস্তাব গিয়েছে বলে খবর।

মহারাষ্ট্রের ৪৮টি আসনের মধ্যে বিজেপির এবার অন্তত ৩৬টি আসনে লড়তে চাইছে। কিন্তু সেখানে একনাথ শিন্ডে অন্তত ১২ ও অজিত পাওয়ার ৮টি আসনে লড়তে চেয়েছেন। তার মধ্যে একটি আসনে বিজেপিকে তাদের ঘনিষ্ঠ একটি আসনে নির্দল প্রার্থী নবনিত রানাকে ছাড়তেই হবে। তার ওপর আবার রামদাসের দুটি আসনের জেদ নতুন করে চিন্তায় ফেলবে নাড্ডা-কে। অথচ মহারাষ্ট্র রাজনীতির এই চাপাচাপি অবস্থার মধ্য়ে শরিকদের চটাতেও চাইছে না পদ্ম শিবির। সেখানে ইন্ডিয়া শিবির থেকে উদ্ভব ঠাকরে ২২টি, কংগ্রেস ১৭টি ও শরদ পাওয়ারের দল ৯টি আসনে লড়তে চলেছে।