Gujarat: বিরলতম রোগে আক্রান্ত ১৭ বছরের পড়ুয়া, ক্লাসের মধ্যে হৃদরোগে মৃত্যু
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: Pixabay)

রাজকোট, ১৮ জুলাইঃ অল্প বয়সীদের মধ্যে বাড়ছে হৃদরোগে (Heart Attack) আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা। পরিণতি এক পলকেই মৃত্যু। সোমবারই গুজরাতের (Gujarat) রাজকোটে এক ১৭ বছরের তরুণের হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে। মৃতের নাম মুদিত নদিয়াপারা। রাজকোটের বাহাদুর শাস্ত্রী উচ্চ বিদ্যালয়ে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়া ছিল সে।

দিন কয়েক আগেই কোভিডের দুটো (Covid Vaccine) ডোজ সম্পন্ন হয়েছিল মুদিতের। তাঁর পরেই জ্বর আসে। জানান মৃতের বাবা। ১৭ জুলাই স্কুলে রাজকোট ভাষার একটি ক্লাস টেস্ট ছিল। সকাল থেকে ছেলে স্বাভাবিক ছিল। সামান্য জ্বর ছিল গায়ে। সেই অবস্থাতেই স্কুলে গিয়েছিল সে। পরীক্ষা শুরু হওয়ার কিছু মুহূর্ত আগে আচমকাই ক্লাসের মধ্যে পড়ে যা মুদিত। তড়িঘড়ি সমস্ত শিক্ষক শিক্ষিকারা ছুটে আসেন। তাঁকে সিপিআর দেওয়া হয়। কিছুতেই জ্ঞান ফিরছে না দেখে অ্যাম্বুলেন্সে ডাকা হয়। নিকটবর্তী হাসপাতালে মুদিতকে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃতের দেহ ময়নাতদন্তের পর চিকিৎসকরা জানান, কার্ডিওমায়োপ্যাথিতে (Cardiomyopathy) আক্রান্ত হয়েছিল ১৭ বছরের পড়ুয়া। যা এই বয়সের অত্যন্ত বিরলতম একটি রোগ। এতে হার্টের বাম ভেন্ট্রিকুলার প্রাচীরের একপাশ খুব পুরু থাকে এবং অন্য পাশে কোন পেশী থাকে না শুধুমাত্র থাকে ফাইবার টিস্যু। এই রোগে মানুষ এমনিতেই বেশি দিন বাঁচে না। যদিও মুদিতের আরও দু তিন বছর বেশি বাঁচার কথা ছিল। কিন্তু হার্টের একটা দিক ফেটে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। যদিও মৃতের বাবার কথায়, ছেলের কোন মেডিক্যাল ইতিহাস ছিল না।