Suchana Seth: ছেলেকে খুনের পর প্রথমবার স্বামীর মুখোমুখি সূচনা, দুজনের দোষারোপের ফিরিস্তিতে অবাক গোয়া পুলিশ
Suchana Seth and Hausband Venkat Raman (Photo Credits: X)

পানাজি, ১৪ জানুয়ারিঃ গতকালই গোয়া (Goa) এসেছেন চার বছরের ছেলেকে খুনের অভিযোগে অভিযুক্ত সূচনা শেঠের স্বামী বেঙ্কট রমন (Suchana Seth Husband Venkat Raman)। আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে এসেছেন তিনি। স্ত্রীর হাতে খুন হয়েছে ছোট্ট ছেলে। সন্তানকে হত্যার পর শনিবার প্রথম স্বামীর মুখোমুখি হলেন সূচনা (Suchana Seth)। গোয়া পুলিশের সামনে ১৫ মিনিটের জন্যে কথা বলেন তাঁরা। আর গোটা সময় জুড়েই স্বামী-স্ত্রীর তুমুল ঝগড়ার সাক্ষী থাকল গোয়া পুলিশ। বাগবিতণ্ডার মাঝে একে অপরকে কেবলই দোষারোপ করে গিয়েছেন তাঁরা। কেন ছেলেকে খুন করছেন সূচনা, সেই কৈফিয়ত স্ত্রীর থেকে চেয়েছন বেঙ্কট। স্বামীর সামনেও ছেলেকে খুনের অভিযোগ অস্বীকার করেন সূচনা। বলেন, ছেলের সঙ্গেই ঘুমাচ্ছিলেন তিনি। ঘুম থেকে উঠে দেখেন ছেলে মারা গিয়েছে। অথচ সন্তানশোক মায়ের চোখে মুখে কোথাও ছাপ ফেলেনি।

আরও পড়ুনঃ তদন্তে সহযোগিতা নেই সূচনার, আইনজীবীকে নিয়ে গোয়ার থানায় স্বামী বেঙ্কট রমন

বেঙ্কটের উপর পালটা সাংসারিক অশান্তি, গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ তুলেছেন বেঙ্গালুরুর স্টার্টআপ সংস্থার সিইও সূচনা শেঠ। যদিও বেঙ্কটের অভিযোগ, ছেলে নিশ্চয়ই তাঁর সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিল। সেই রাগে সূচনা ছেলেকে খুন করেছে। তাঁর ব্যাখা, আদালত প্রতি রবিবার করে ছেলের সঙ্গে বাবার দেখা করার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু সূচনার তা একেবারেই নাপসন্দ ছিল। ফোন বা ভিডিয়ো কলেও ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে দিতেন না স্ত্রী। এমনকি ঘটনার দিন ৭ জানুয়ারি রবিবারই ছেলের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল বেঙ্কটের। কিন্তু তার ঠিক আগের দিন ৬ জানুয়ারি বেঙ্গালুরু থেকে গোয়া নিয়ে চলে আসেন সূচনা। ৬-১০ তারিখ অবধি হোটেল বুক করে অগ্রিম সমস্ত টাকা মিটিয়ে দেন কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু ৭ জানুয়ারি আচমকা হোটেল ছেড়ে ট্যাক্সি ভাড়া করে একাই বেঙ্গালুরু যাওয়ার  কথা বললে সন্দেহ হয় হোটেল মালিকের। আসার সময়ে সঙ্গে ছেলে থাকলেও ফেরার সময় ছিল কেবলই একটা বড় ব্যাগ। নগদ ৩০ হাজার টাকা ভাড়া গুনে ট্যাক্সিতে চড়েছিলেন সূচনা। কিন্তু পথেই গোয়া পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন তিনি।

কীভাবে নিজের চার বছরের সন্তানকে খুন করলেন সূচনা, সেই রহস্যের কিনারা করতে প্রাণপাত করছে গোয়া পুলিশ। গোয়ার হোটেলে সূচনাকে নিয়ে গিয়ে ঘটনার পুনর্নির্মাণও করেছে পুলিশ। কিন্তু তদন্তে সূচনার কোন সহযোগিতা নেই বলেই গোয়া পুলিশ বারে বারে অভিযোগ করছে।