Jama Masjid Controversy: এটা কি ইরান নাকি? জামা মসজিদের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিল্লির মহিলা কমিশনের
জামা মসজিদের ফাইল ফটো (Photo Credits: IANS)

নয়াদিল্লি: দিল্লির জামা মসজিদ (Delhi's Jama Masjid) কর্তৃপক্ষের তরফে নির্দেশিকা জারি হয়েছে পুরুষদের সঙ্গে না এলে মহিলাদের সেখানে ঢুকতে দেওয়া হবে না। একা কোনও মহিলা আর প্রবেশ করতে পারবেন না সেখানে। এই নির্দেশিকার কথা প্রকাশ্যে আসার পরেই দেশজুড়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। এবার এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করল দিল্লির মহিলা কমিশন (Delhi Commission for Woman)। বৃহস্পতিবার এই অদ্ভুত ফরমানের (Jama Masjid Controversy) কারণ জানতে চেয়ে জামা মসজিদের শাহী ইমাম মৌলানা সৈয়দ আহমেদ বুখারিকে (Shahi Imam Maulana Syed Ahmed Bukhari) নোটিস পাঠাল তারা। এমনকী একটি ভিডিয়ো বার্তায় ভারতকে তারা কি ইরান মনে করছে নাকি বলেও প্রশ্ন তুলেছেন দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারম্যান স্বাতী মালিওয়াল (Swati Maliwal)।

বৃহস্পতিবার জামা মসজিদের গেটে একটি নোটিস ঝোলানো রয়েছে দেখতে পাওয়া যায়। তাতে লেখা ছিল, জামা মসজিদে পুরুষ ছাড়া একা মহিলা ও মহিলাদের প্রবেশ করতে নিষেধ করা হচ্ছে। এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই দিল্লি মহিলা কমিশনের তরফে জামা মসজিদ কর্তৃপক্ষকে নোটিস পাঠিয়ে এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে সুপারিশ করা হয়। কেন তারা এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা জানতেও চাওয়া হয়।

মহিলা কমিশনের নোটিসে উল্লেখ করা হয়েছে, দিল্লির জামা মসজিদ একটা ঐতিহাসিক মসজিদ। এখানে আগাগোড়াই বিভিন্ন বয়সের মহিলারা গিয়ে নিজেদের ধর্মীয় প্রার্থনা জানাতেন। এখন তাঁদের সেখানে একা ঢুকতে না দেওয়া ও ধর্মীয় প্রার্থনা না করতে দেওয়ার নির্দেশ অত্যন্ত অপমানজনক। দেশের প্রতিটি ধর্মীয় স্থানে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবাইকে প্রবেশ করতে দেওয়া উচিত। তা না হলে ভারতের সংবিধানকে অপমান করার সামিল হবে। কীভাবে জামা মসজিদ কর্তৃপক্ষ এই ধরনের বৈষম্যমূলক সিদ্ধান্ত নিল তা কমিশনকে জানাতে হবে। যে বৈঠকে এই সিদ্ধান্তে নেওয়া হয়েছে তার মিনিটস ও সেখানে কারা কারা উপস্থিত ছিল তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। সেই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর কমিশন যথাপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভিডিয়োতে শুনুন দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারম্যানের বক্তব্য: