Delhi: NRC হলে মনোজ তিওয়ারিকেই প্রথমে দিল্লি ছাড়তে হবে: অরবিন্দ কেজরিওয়াল
অরবিন্দ কেজরিওয়াল (Photo Credits: IANS)

নয়া দিল্লি, ২৫ সেপ্টেম্বর : NRC নিয়ে শুধু অসম (Assam) বা পশ্চিমবঙ্গ (Westbengal) নয়। দিল্লিতেও (Delhi) জোর চর্চা ও রাজনৈতিক বক্তব্য পালটা বক্তব্য শুরু হয়েছে। আজ দিল্লিতে এক সাংবাদিক বৈঠকে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal) বলেন, "যদি দিল্লিতে NRC চালু হয়। সবার প্রথমে মনোজ তিওয়ারিকেই (Manoj Tiwari) দিল্লি ছাড়তে হবে।" গতমাসে দিল্লিতে অপরাধের বাড়বাড়ন্তের জন্য শরণার্থী উদ্বাস্তুদেরই দায়ী করে দিল্লির বিজেপির সভাপতি মনোজ তিওয়ারি বলেছিলেন, "দিল্লির পরিস্থিতি ক্রমশই বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়াচ্ছে। বেআইনি শরণার্থীরা এখানে ভিড় করছেন, তাঁরাই সবচেয়ে বিপজ্জনক।' তিওয়ারি আরও বলেন, "এখানে বসবাসকারী অবৈধ অভিবাসীরা সবচেয়ে বিপজ্জনক, আমরা এখানেও NRC চালু করব।" দিল্লিতে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা (Rohingya people) ও বাংলাদেশি বসতি স্থাপন করেছে বলেও দাবি করেন।

আজ সেই বক্তব্যের জবাব দিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এর আগে সমাজবাদী পার্টির (SP) প্রধান অখিলেশ যাদব (Akhilesh Yadav) বলেন, উত্তরপ্রদেশে যদি NRC কার্যকর হয় তবে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে (Yogi Adityanath) ফিরে যেতে হবে। কারণ তিনি উত্তরাখণ্ডের মূল বাসিন্দা। আরও পড়ুন: NRC: অনুপ্রবেশকারীদের তাড়িয়ে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের হিন্দুদের স্থান দেওয়া হবে : কৈলাস বিজয়বর্গীয়

সরকারে এলে পশ্চিমবঙ্গেও তারা NRC কার্যকর করবে জানিয়েছে বিজেপি। রোজই এনিয়ে তারা নানা মন্তব্য করছে। এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি জানিয়ে দিয়েছে, এরাজ্যে NRC কার্যকর হবে না। তিনি হতে দেবেন না। তাছাড়াও NRC-র আতঙ্কে রাজ্যে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে বলেও অভিযোগ করে মমতা ব্যানার্জি। আজও বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেছেন, রাজ্যে সরকার গড়লে তারা ১০০ শতাংশ NRC কার্যকর করবেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের হিন্দুদের এদেশে নাগরিকত্ব দেবেন।

এদিকে NRC-র পক্ষে সওয়াল করে এবার একেবারে কলকাতায় এসে নিজের বক্তব্য পেশ করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে আগামী ১ অক্টোবর, দুর্গাপুজোর তৃতীয়ায় রাজ্য বিজেপি-র সভায় অমিত শাহ বিভিন্ন ইস্য়ুর পাশাপাশি মূলত এনআরসি নিয়েই বক্তব্য রাখতে চলেছেন। মূলত দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যেই বক্তব্য রাখবেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আগেই বিভিন্ন জায়গায় বলেছিলেন, ভারতে অনুপ্রবেশকারীদের কোনও জায়গা নেই। একেবারে পুজোর মুখে অমিত শাহ-র কলকাতায় সভা ঘিরে রাজ্যে বিজেপিতে সাজো সাজো রব। বোঝাই যাচ্ছে ২০২১ বিধানসভার আগে এনআরসি ইস্যুতেই তৃণমূল-বিজেপির মধ্যে সম্মুখসমর হতে চলেছে।