COVID 19: করোনায় আক্রান্ত ১৮২, কর্ণাটক মেডিকেল কলেজের পার্টিই 'সুপারস্প্রেডার', বিপর্যয়ের আশঙ্কা
Covid-19 Cases In India (File Photo)

বেঙ্গালুরু, ২৬ নভেম্বর: 'ফ্রেশার্স পার্টিতে' হাজির হয়ে করোনায় (Corona) আক্রান্ত ১৮২। যার জেরে করোনা নিয়ে ফের প্রমাদ গুনতে শুরু করেছে কর্ণাটক। রিপোর্টে প্রকাশ, কর্ণাটকের (Karnataka) ধারওয়াডের মেডিকেল কলেজে Karnataka Medical College) সম্প্রতি ফ্রেশার্স পার্টি ছিল। সেখানে হাজির হওয়ার পর কোভিডে আক্রান্ত হন পরপর ১৮২ জন। মেডিকেল কলেজের কর্মী থেকে পড়ুয়া, আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন প্রত্যেকে। যার জেরে এবার ফের করোনার চোখ রাঙানি শুরু হয়েছে। এমনকী, ধারওয়াড মেডিকেল কলেজের ওই ফ্রেশার্স পাটিকে 'সুপারস্প্রেডার' হিসেবেও চিহ্নিত করছেন অনেকে।

জানা যাচ্ছে, ধারওয়াড মেডিকেল কলেজে যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হন, তাঁদের প্রত্যেকের ভ্যাকসিনের দুই ডোজ সম্পূর্ণ। তা সত্ত্বেও কীভাবে তাঁরা করোনায় আক্রান্ত হলেন, তা নিয়ে আশঙ্কা ছড়িয়েছে। পাশাপাশি আক্রান্তদের মধ্যে কারও শরীরে করোনায় নয়া প্রজাতি বাসা বেঁধেছে কি না, তা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: Priyanka Gandhi: বিজেপি সরকারের 'অহঙ্কারের' প্রতীক হিসেবে স্মরণীয় থাকবে কৃষক আন্দোলন, বললেন প্রিয়াঙ্কা

বৃহস্পতিবার ধারওয়াড মেডিকেল কলেজের ৩০০ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সেখান থেকে ৬৬ জন পড়ুয়া করোনায় আক্রান্ত বলে জানা যায়। ওই ৬৬ জনেরই ভ্যাকসিনের দুই ডোজ সম্পূর্ণ। প্রসঙ্গত ১৭ অক্টোবর ধারওয়াড মেডিকেল কলেজে ফ্রেশার্স পার্টির আয়োজন করা হয়। কলেজের পড়ুয়ারা একের পর এক করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর, দুটি ছাত্রাবাস 'সিল' করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি যাঁরা করোনায় আক্রান্ত কিংবা আক্রান্তদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের প্রত্যেককে নিভৃতাবাসে থাকতে হবে বলেও জানানো হয়।

ওই মেডিকেল কলেজের পড়ুয়া এবং কর্মীদের মধ্যে যাঁরা যাঁরা করোনায় (COVID 19) আক্রান্ত, প্রত্যেকের চিকিৎসাই সেখানে করা হবে বলে জানানো হয়। গত কয়েক সপ্তাহে গোটা কর্ণাটক জুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ কমতে শুরু করে। তার মাঝে হঠাৎ করে ধারওয়াড মেডিকেল কলেজের ওই ঘটনাকে এবার রাজ্যের 'সুপারস্প্রেডার' হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে।