অর্থনৈতিক মন্দায় আমি উদ্বিগ্ন, সরকার কী করছে? তিহাড় জেল থেকে বিজেপিকে খোঁচা চিদম্বরমের
পি চিদম্বরম(Photo Credit: ANI)

দিল্লি, ১১ সেপ্টেম্বর: দেশের অর্থনীতি নিয়ে বেজায় উদ্বিগ্ন আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় তিহাড় জেলে থাকা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম (P Chidambaram) । সরকার এই পরিস্থিতি কাটাতে কী উদ্যোগ নিচ্ছে, জানতে চাইলেন প্রবীণ কংগ্রেস। নেতা। পি চিদম্বরম জেলবন্দি থাকলেও তাঁর পরিবারের সদস্যদের মারফৎ সরকারের কাছে দেশের অর্থনীতির ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আর চিদম্বরমের পরিবারের তরফে তাঁর বক্তব্য টুইটারে প্রকাশ করা হয়েছে। বন্দি অবস্থায় চিদম্বরমের টুইটার অ্যাকাউন্ট চালু আছে। এর আগেও তিনি অর্থনীতির মন্দা ও তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে মন্তব্য করেছেন। সেই সঙ্গে উল্লেখ করেছেন, পরিবারের মাধ্যমে তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট চলছে।

উল্লেখ্য, আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় ৭৩ বছরের চিদম্বরমকে ১৪ দিন জেল হেফাজতে রাখতে নির্দেশ দিয়েছে বিশেষ সিবিআই আদালত। তার আগে তিনি সিবিআই হেফাজতে ছিলেন ১৫ দিন। আদালত তার পরেও তাঁকে জামিন দিতে রাজি হয়নি। সিবিআইয়ের অভিযোগ, ২০০৭ সালে কেন্দ্রে অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বিধি ভেঙে আইএনএক্স মিডিয়াকে (INX Media)বিদেশি বিনিয়োগ পাইয়ে দিয়েছিলেন পি চিদম্বরম। ২০১৭ সালের ১৫ মে সিবিআই ওই মামলায় চার্জশিট দেয়। তাতে চিদম্বরমের ছেলে কার্তিও অভিযুক্ত ছিলেন। চিদম্বরম অবশ্য বরাবরই বলে এসেছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্যই তিনি ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।  আরও পড়ুন-অর্থনীতি নিয়ে দুশ্চিন্তা , তিহাড় জেলে যাওয়ার সময় কী বললেন পি চিদম্বরম?

এদিকে দেশের অর্থনীতির বেহাল দশা নিয়ে প্রথম থেকেই কেন্দ্র বিজেপি সরকারকে উঠতে বসতে কটাক্ষ করেছেন পি চিদম্বরম। গত তিন সেপ্টেম্বর সিবিআি আদালত থেকে বেরনোর পর সাংবাদিকরা তাঁকে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন করেন। জবাবে চিদম্বরম শুধু বলেন, ফাইভ পার্সেন্ট। তিনি আইএনএক্স দুর্নীতি নিয়ে মন্তব্য না করে অর্থনীতি নিয়ে সরকারকে কটাক্ষ করেছিলেন। এপ্রিল থেকে জুন অবধি ত্রৈমাসিকে অর্থনীতির বিকাশ হয়েছে পাঁচ শতাংশ হারে। চিদম্বরম সেকথাই সাংবাদিকদের মনে করিয়ে দেন। সেই ছবি ভাইরাল হয়ে যায় সোস্যাল মিডিয়ায়। এর দিন কয়েক পরেই সিবিআই-এর সদর দপ্তর ছেড়ে প্রবীণ কংগ্রেস নেতার বর্তমান ঠিকান হয় তিহাড় জেল। অসুস্থতার কারণে সেখানে যেতে চাননি তিনি। তবে আদালতের নির্দেশে এখন সেখানেই আছেন পি চিদম্বরম। আর সুযোগ পেলেই বিজেপি সরকারকে কটাক্ষ করে চলেছেন।