Hemant Soren: পাথলগড়ি আন্দোলন এবং জমি অধিকার আইনে আদিবাসীদের বিরুদ্ধে সব মামলা প্রত্যাহার করে নিলেন ঝাড়খণ্ডের নব নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন
জেএমএম নেতা হেমন্ত সোরেন (Photo Credits: PTI)

রাঁচি, ৩০ ডিসেম্বর: আদিবাসীদের জমি রক্ষা আইনে বদল নিয়ে প্রতিবাদে উত্তাল হয়েছিল গোটা ঝাড়খণ্ড (Jharkhand)। ঝাড়খণ্ডে আদিবাসীদের জমি সুরক্ষিত রাখার জন্য ছিল 'ছোটনাগপুর টেনান্সি অ্যাক্ট' এবং 'সাঁওতাল পরগণা টেনান্সি অ্যাক্ট'। কিন্তু রঘুবর দাসের (Raghubar Das) সরকার সেই আইনে বদল আনে। যা নিয়ে ঝাড়খণ্ড জুড়ে শুরু হয় বিক্ষোভ। ক্ষমতা হাতে পেয়েই সেই ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ দিলেন ঝাড়খণ্ডের নব নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন (Hemant Soren)। মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার মঞ্চ থেকেই গতকাল রবিবার তিনি ঘোষণা করেন পাথলগড়ি আন্দোলন এবং জমি অধিকার আইনের বদলে দেওয়া অংশ নিয়ে আদিবাসীদের বিরুদ্ধে সব মামলা প্রত্যাহার করে নিলেন তিনি। ফলে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা থেকে রেহাই পেলেন দশ হাজার আদিবাসী।

পরিবর্তিত আইন অনুযায়ী, আদিবাসীদের জন্য সংরক্ষিত জমি উন্নয়নের প্রকল্পে ব্যবহার করা যেতে পারে। বিধানসভায় (Assembly) কোনও আলোচনা ছাড়াই এই সংশোধনী বিল পাশ করিয়ে নিয়েছিল রঘুবর দাসের সরকার। এ নিয়ে প্রতিবাদে নেমেছিলেন ঝাড়খণ্ডের হাজার হাজার আদিবাসীর। ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে রাঁচিতে আসা প্রতিবাদকারীদের মাঝপথেই আটকে দিয়েছিল পুলিশ। প্রতিবাদকারীদের নানাভাবে হেনস্থা করা হয়েছিল। নানান অভিযোগ সামনে এনে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। সেই আদিবাসীদের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ভোটে লড়েছিলেন হেমন্ত। জানিয়েছিলেন ক্ষমতায় এলে সব মামলা মুকুব হয়ে যাবে। কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী। শপথ মঞ্চ থেকেই ঘোষণা করলেন ওই ১০,০০০ আদিবাসীর বিরুদ্ধে আনা মামলা প্রত্যাহার করে নেওয়া হল। আরও পড়ুন: Hemant Soren: ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন হেমন্ত সোরেন

হেমন্তের সঙ্গেই এদিন মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন কংগ্রেস নেতা আলমগীর আলম (Alamgir Alam), রামেশ্বর ওরাঁও (Rameshwar Oraon) এবং আরজেডি বিধায়ক সত্যানন্দ ভোকতা (Satyanand Bhokta )। রাঁচির মোরাবাদী মাঠের সুবিশাল মঞ্চে তাঁদের শপথবাক্য পাঠ করালেন রাজ্যপাল দ্রৌপদী মুর্মু (Governor Droupadi Murmu)।