CBSE Board Exam 2020: কাল থেকে শুরু সিবিএসই বোর্ডের ক্লাস টেন ও ক্লাস টুয়েলভের পরীক্ষা, পরীক্ষার্থীদের জন্য কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশাবলী
(Photo Credits: PTI)

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে সিবিএসই-র (CBSE) ক্লাস টেন (Class 10th) ও ক্লাস টুয়েলভের (Class 12th) পরীক্ষা। নির্ধারিত মূল পেপারসহ বৃত্তিমূলক এবং দক্ষতা ভিত্তিক বিষয়গুলি দিয়ে শুরু হচ্ছে পরীক্ষা। ক্লাস টেনের পরীক্ষা চলবে ২০ মার্চ পর্যন্ত। অন্যদিকে ৩০ মার্চ ক্লাস টুয়েলভের পরীক্ষা শেষ হবে। সকাল ১০টা থেকে পরীক্ষা শুরু থেকে হবে। চলবে দেড়টা পর্যন্ত। প্রথম ১৫ মিনিট কেবল প্রশ্নপত্র দেখ নেওয়ার জন্য দেওয়া হবে। গত বছর সিবিএসই-র বোর্ডের পরীক্ষায় প্রায় ২৭ লাখ পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছিল। এই বছর পরীক্ষার্থীর সংক্যা প্রায় ১ লাখ বেড়েছে। প্রায় ২৭ লাখ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছে। পরীক্ষার্থীরা যাতে ঝামেলা-মুক্ত হয়ে পরীক্ষা দিতে পারে তাই আজই কয়েকটি জিনিস তাদের করতে হবে।

কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় পরীক্ষার্থীদের মাথায় রাখতে হবে:

  • শিক্ষার্থীদের কমপক্ষে ২০ মিনিট আগে পরীক্ষার কেন্দ্রে পৌঁছানো উচিত। সাড়ে ৯টা বা ৯টা ৪০-র মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছান। যদিও সাড়ে দশটা থেকে পরীক্ষা শুরু হবে, তবে গেট ১০টায় বন্ধ হয়ে যাবে আরও পড়ুন: AICTE: ৫০ শতাংশ সিট ফাঁকা, ২ বছর নতুন এঞ্জিনিয়ারিং কলেজে তৈরিতে ছাড়পত্র দেবে না AICTE
  • অ্যাডমিট কার্ড সঙ্গে নিতে ভুললে চলবে না। কারণ এটি ছাড়া তাদের পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না
  • পরীক্ষার্থীদের তাদের স্কুলের ইউনিফর্ম পরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। অন্যরা উপযুক্ত ইউনিফর্ম পরতে পারেন। পরীক্ষার্থীদের কোনও ধরণের মাথা ঢাকা পোশাক পরতে দেওয়া হবে না (ধর্মীয় বাদে)। এছাড়া ডিজিটাল ঘড়ি, গয়না ইত্যাদিও পরা যাবে না
  • অ্যাডমিট কার্ড, পেন্সিল বক্স, জ্যামিতি বাক্স এবং একটি কার্ডবোর্ড বহন করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে পরীক্ষার্থীদের মাথায় রাখতে হবে যে প্রতিটি জিনিস যেন স্বচ্ছ হয়
  • উত্তরপত্র ১০টা বাজলেই দেওয়া হবে। ওএমআর শিটটি পূরণ করার জন্য সময় দেওয়া হবে। ওএমআর শিটে কোনও হোয়াটনার ব্যবহার করা যাবে না
  • ১০টা ১৫ মিনিটে প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে। ১৫ মিনিট বরাদ্দ থাকছে প্রশ্নপত্র ভালো করে পড়ার জন্য়। এই সময়টি পুরোপুরি কাজে লাগান
  • বিষয়ের উপর নির্ভর করে পরীক্ষা ৩ ঘন্টা বা ২ ঘন্টা ধরে হবে
  • কোনও সমস্যা হতে পারে। তার জন্য স্কুলের একজন শিক্ষক পরীক্ষা কেন্দ্রে সর্বদা উপস্থিত থাকবেন