Delhi Violence: দিল্লিতে সিএএ বিরোধী ও সমর্থকদের সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫
. (Photo Credits: IANS)

নতুন দিল্লি, ২৫ ফেব্রুয়ারি: CAA-কে কেন্দ্র করে ফের উত্তপ্ত দিল্লি (Delhi)। রণক্ষেত্রে পরিণত হল উত্তর-পূর্ব দিল্লির জাফরাবাদ এলাকা (Jaffrabad)। যাঁর আঁচ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে অন্যত্রও। জাফরাবাদ, মৌজপুর (Maujpur), গোকুলপুরী, চাঁদবাগ সহ একাধিক জায়গায় সংঘর্ষে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। এদের মধ্যে একজন পুলিশের কনস্টেবল এবং বাকিরা সাধারণ নাগরিক। দিল্লি পুলিশর তরফে জানানো হয়েছে, সংঘর্ষে আহতর সংখ্যা ১০৫।

সোমবার জাফরাবাদ থেকে মৌজপুর পর্যন্ত সিএএ-র সমর্থনকারী ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। পুলিশের সামনেই চলতে থাকে পাথরবৃষ্টি, দেওয়া হয় পেট্রল পাম্প, দমকলের গাড়ি, ঘর ও যানবাহনে আগুন। পুলিশের সামনেই বন্দুক হাতে এক যুবককে তেড়ে আসতে দেখা গেছে। আর তা ধরা পড়েছে সংবাদমাধ্যমের বিভিন্ন ফুটেজে। অভিযোগ, মোট আটবার গুলি চালিয়েছে সে। এমনকী ভাইরাল এক ভিডিয়োতে পুলিশ কর্মীকে শাসাতে দেখা যায় ওই দুষ্কৃতীকে। যদিও তৎক্ষণাৎ কোনও ব্যবস্থা নিতে পারেননি ওই পুলিশকর্মী। তবে রাতে তাকে চিহ্নিত করে আটক করেছে পুলিশ। আরও পড়ুন: CAA Protest at Delhi: ট্রাম্প সফরের মাঝেই CAA ইস্যুতে রণক্ষেত্র দিল্লি, নিহত ১ পুলিশকর্মী

ভজনপুরা ও মৌজপুরে CAA বিরোধী ও সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে তুমুল সংঘর্ষ হয়। একে অপরকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি করে দু'পক্ষই। ভজনপুরাতে পুলিশের জিপ ও একটি রিকশা জ্বালানোর অভিযোগ উঠেছে। দু'পক্ষের সংঘর্ষের মাঝে নিহত হয়েছেন দিল্লি পুলিশের এক হেড কনস্টেবল। গোকুলপুরী এলাকায় আহত হয়েছেন এক DCP-ও। এদিকে সন্ধার পরই দিল্লিতে মহম্মদ ফুরকান নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। ওই ব্যক্তি উত্তর-পূর্ব দিল্লির বাসিন্দা। রাতের দিকে জানা যায়, মারা গিয়েছেন আরও দুজন সাধারণ নাগরিক। গুরুতর আহত হয়েছেন ২০ জন। এদিকে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দিল্লির উপ-রাজ্যপাল এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাহায্য চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। অন্যদিকে, জানা গেছে রাজধানীর ১০টি এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে। পরিস্থিতির ওপরে নজর রাখা হচ্ছে।