জামিন পেলেন না চিদম্বরম, ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত জেলে থাকলেও মিলবে বাড়ির খাবার
পি চিদম্বরম(Photo Credit: PTI)

নতুন দিল্লি, ৩ অক্টোবর: সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করাই সার, আপাতত ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত তিহাড় জেলেই থাকতে হবে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমকে। সোমবারই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের (P Chidambaram) জামিনের আবেদন বাতিল করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার বিশেষ সিবিআই আদালত নির্দেশ দিল, আগামী ১৭ অক্টোবর অবধি তাঁকে জেলে থাকতে হবে। চিদম্বরমের আইনজীবীরা আবেদন করেছিলেন, ৭৪ বছর বয়সী কংগ্রেস নেতাকে বাড়ি থেকে খাবার দিতে অনুমতি দেওয়া হোক। একইসঙ্গে তাঁকে দিনে দু’বার ডাক্তারি চেক আপ করানোরও আবেদন জানানো হয়েছিল। সিবিআই এই দু’টি আর্জিতে তাদের আপত্তি নেই বলে জানিয়েছে। যদিও এই দুটি আবেদনই আগে গা করেনি দিল্লি হাইকোর্ট।

গত ৫ আগস্ট থেকে আইএনএক্স মিডিয়া (INX media case) মামলায় দিল্লির তিহাড় জেলে আছেন চিদম্বরম। তার আগে তিনি ছিলেন সিবিআই হেফাজতে। গোয়েন্দা সংস্থা আদালতে জানিয়েছে, জামিন পেলে প্রাক্তন মন্ত্রী বিদেশে পালানোর চেষ্টা করতে পারেন। তিনি সাক্ষীদেরও প্রভাবিত করতে চাইতে পারেন। তাই তাঁর জামিনের আবেদন বার বার খারিজ হয়ে যাচ্ছে। এদিকে এহেন পরিস্থিতি বদলাতে কসুর করছেন না চিদম্বরমের আইনজীবীরা। তবে নিট ফল জিরো। কেননা প্রবীণ কংগ্রেস সাংসদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ, ২০০৭ সালে কেন্দ্রে অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন চিদম্বরম আইএনএক্স মিডিয়া নামে এক সংস্থাকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি বিনিয়োগ পাইয়ে দিয়েছিলেন। বিনিময়ে ওই মিডিয়া সংস্থা চিদম্বরমের ছেলে কার্তিকে নানা সুবিধা দিয়েছিল। গোয়েন্দাদের ধারণা, বিধি ভেঙে বিদেশি বিনিয়োগ পাইয়ে দেওয়ার জন্য কার্তি যে অর্থ নিয়েছিলেন, তা বিদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আরও পড়ুন-আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় দিল্লি হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এবার সুপ্রিম কোর্টে পি চিদম্বরম

নিজের অফিসকে ব্যবহারের সুযোগ করে দিয়েছিলেন বেসরকারি মিডিয়াকে। জেরায় নাকি এই তথ্য দিয়েছে ইন্দ্রাণী ও পিটার মুখার্জি। যদিও চিদম্বরম নাকি ইন্দ্রাণীর নামই শোনেননি। এদিকে আজ এই আবেদন পেয়ে বিচারপতি এনভি রামানার ডিভিশনবেঞ্চ জানিয়েছে, আজকের দিনের মধ্যেই এনিয়ে চূড়ান্ত রায় শোনাবেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (CJI Ranjan Gagoi)। সেজন্য পি চিদম্বরমের (P Chidambaram) জামিনের আবেদনের ফাইল তাঁর কাছে পাঠানো হয়েছে। গত ২১ আগস্ট রাতে দিল্লির জোড় বাংলোর বাড়ি থেকে চিদম্বরমকে গ্রেপ্তার করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। তারপর সিবিআই আদালতের রায়ে চিদম্বরমের বিচার বিভাগীয় হেফাজত হয়, তারও বয়স একমাস হয়ে গেল। একমাস ধরে তিহাড় জেলের সাত নম্বর কুঠুরিতে রয়েছেন ৭৪ বছরের কংগ্রেস নেতা। তাঁর শরীর খারাপ হয়েছে তাই ডাক্তারি পরীক্ষা দরকার বলে আইনজীবীদের তরফে আবেদন করা হলেও বিচারক তা গ্রাহ্যের মধ্যে আনেননি। এমনকী কংগ্রেসের প্রতিনিধিদল তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পারেনি, জেলরের সঙ্গে কথা বলে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছে।