Arvind Kejriwal: জেলবন্দি মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি নির্দেশ পেতেই কেঁদে ফেললেন অতিশী, কী ছিল কেজরির চিঠিতে? ব্যাখা মন্ত্রীর
AAP Minister Atishi, Delhi CM Arvind Kejriwal (Photo Credits: ANI)

নয়া দিল্লি, ২৪ মার্চঃ জেলবন্দি মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের (Arvind Kejriwal) কাছ থেকে প্রথম সরকারি নির্দেশ পেয়ে চোখে জল চলে এসেছিল আপ মন্ত্রী অতিশী মারলেনার। রবিবার সাংবাদিক বৈঠক ডেকে সেই নির্দেশের কথা জানালেন অতিশী (AAP Minister Atishi)। ভারতের ইতিহাসে এমন ঘটনা প্রথম। যেখানে মুখ্যমন্ত্রী জেলে থেকেই সরকারি কাজ পরিচালনা করছেন। নির্দেশ দিচ্ছেন। ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী পদে অনড় থেকে নজির গড়লেন আপ আহ্বায়ক। রবিবার ইডি হেফাজত থেকেই নিজের মন্ত্রিসভার উদ্দেশ্যে একটি নির্দেশ জারি করেছেন কেজরি (Arvind Kejriwal)। মুখ্যমন্ত্রীর সেই নির্দেশ লেখা চিঠি হাতে পেয়েই কেঁদে ফেলেছিলেন মন্ত্রী অতিশী (Atishi)। নিজের মুখে মন্ত্রী সেই কথা জানান।

আরও পড়ুনঃ কেজরির গ্রেফতারির পর আপের প্রথম বৈঠকের ডাক, মুখ্যমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে সভাপতিত্ব করবেন কে?

জেল থেকে মুখ্যমন্ত্রী প্রশাসনিক কাজ করছেন সেই খবর চাওর হতেই তাঁর জারি করা নির্দেশিকায় কী রয়েছে তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়। তবে রহস্য না বাড়িয়ে খোলসা করেছেন আপ মন্ত্রী অতিশী (Atishi)। সাংবাদিক বৈঠক ডেকে তিনি জানান, দিল্লির জল দফতর বিভাগের জন্যে ওই নির্দেশিকা পাঠিয়েছেন জেলবন্দি মুখ্যমন্ত্রী (Arvind Kejriwal)। বিগত কয়েক দিন যাবত রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় জল সরবরাহ নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়েছে। সেই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে অতিশীকে নির্দেশ দিয়েছেন কেজরী। অতিশী দিল্লির জল দফতরের দায়িত্বে রয়েছেন।

বৈঠকে মন্ত্রী (Atishi) বলেন, 'এই নির্দেশিকা যখন আমার কাছে এল, আমি কেঁদে ফেলেছিলাম। ভাবছিলাম, একজন ব্যক্তি যাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কবে ছাড়া কাবে জানেন না। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে নিজের কথা না ভেবে দিল্লিবাসীর কথা ভেবে চলেছেন। একমাত্র অরবিন্দ কেজরিওয়ালই এমন করতে পারে'। অতিশীরা আরও সংযোজন, বিগত ৯ বছর ধরে তিনি (মুখ্যমন্ত্রী) দিল্লির সরকারকে এমন ভাবে চালিয়েছেন যেভাবে কেউ নিজের পরিবারের দেখাশোনা করে। দিল্লিবাসী কেবল তাঁর ভোটার নয়। তাঁর পরিবার।

দেখুন... 

 

এরপর বিজেপি সরকারের উদ্দেশ্যে কেজরির মন্ত্রী বার্তা দেন, 'আপনারা অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে গ্রেফতার করে জেলে ভরতে পারেন। কিন্তু দিল্লিবাসীর প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব, কর্তব্যকে বন্দি করতে পারবেন না'।