Cyclone Gulab: 'য়াস' গেল, পরের 'ঘূর্ণিঝড় 'গুলাব'-র নামকরণ করল পাকিস্তান
(Photo Credits: IMD)

নতুন দিল্লি, ২৭ মে: আম্ফান,তৌকতাই ঘূর্ণিঝড়ের পর য়াসের (Yaas)কাঁটা কাটল। একবছরের মধ্যে তিনটি বড় ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত পূর্ব ও পশ্চিম উপকূল। এরপরের ঘূর্ণিঝড় আসলে তার নাম হবে 'গুলাব' (Cyclone Gulab)। এর নামকরণ করেছে পাকিস্তান (Pakistan)। 'গুলাব' শব্দের অর্থ গোলাপ। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার (ডব্লুএমও) আঞ্চলিক কমিটি একেকটি ঝড়ের নামকরণ করে।

বঙ্গোপসাগর এবং আরব সাগরে আছড়ে পড়া ঝড়গুলোর নামকরণ করে এই সংস্থার অন্তর্ভুক্ত ১৩টি দেশ। বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত, মায়ানমার, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড,মালদ্বীপ, কাতার, সৌদি আরব, ইউএই, ইরান এবং ওমান। ভারতের পক্ষ থেকেও এ পর্যন্ত অনেক ঘূর্ণিঝড়ের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে।যেমন- অগ্নি, আকাশ, বিজলি, জল, লহর, মেঘ, সাগর।

আরও পড়ুন, অশোকনগরে 'টর্নেডো', ভেঙে চুরমার বাড়িঘর, দেখুন

এর আগে বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় আমফানের নামকরণ করেছিল থাইল্যান্ড। 'ফণী'-র নাম দিয়েছিল বাংলাদেশ। 'বুলবুল' নাম দিয়েছিল পাকিস্তান। এরপর ভারতের পূর্ব ও পশ্চিম উপকূলে মে মাসেই পরপর আছড়ে পড়ে আরও ২টি ঘূর্ণিঝড়। গুজরাট, মহারাষ্ট্র, গোয়া, তামিলনাড়ু, কর্ণাটক ও কেরালায় ভয়ঙ্কর প্রভাব ফেলে ঘূর্ণিঝড় 'তৌকতাই'। এর নামকরণ করে মায়ানমার। এরপর অতি প্রবল 'য়াস' এই ঝড়টি বুধবার ২৬ মে দুপুর নাগাদ পশ্চিমবঙ্গ-উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করে। যার নামকরণ করে ওমান। এর অর্থ দুঃখ।

গতকাল য়াসের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে যায় দিঘা, মন্দারমণি, সাগর উপকূল। জলের তোড়ে ভেসে যায় বাড়ির পর বাড়ি। ভয়ঙ্কর তাণ্ডব কাটিয়ে প্রকৃতি এখন শান্ত।