'Mango Diplomacy': রাজনৈতিক তিক্ততা দূরে সরিয়ে মোদি-শাহকে হরেক রকম আম পাঠালেন মমতা
নরেন্দ্র মোদি-মমতা বন্দোপাধ্যায় (Photo Credits: PTI)

কলকাতা, ১ জুলাই: বর্তমানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee) বনাম প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Narendra Modi) রাজনৈতিক সংঘর্ষে সরগরম গোটা দেশ। এরমধ্যেও সৌজন্যে কোথাও খামতি দেখাননি মুখ্যমন্ত্রী। রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদের মালদার (Malda) হিমসাগর, লক্ষ্মণভোগ আম (Mangoes) পাঠিয়েছেন মমতা।

উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধী এবং দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকেও হরেক রকম আম পাঠিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। গত ২০১১ সালে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হওয়ার পর থেকেই এই সৌজন্য নিয়ম করে পালন করে থাকেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। আরও পড়ুন, চিকিৎসক দিবসে বিধান রায়কে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন মমতার, কী বললেন তিনি?

রাজনৈতিক তিক্ততাকে দূরে সরিয়ে রেখে এই সৌজন্যবোধ বজায় রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বছর খানেক আগে অভিনেতা অক্ষয় কুমারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানান, মমতা নিজের হাতে কুর্তা বেছে তাঁকে পাঠান। শুধু কুৰ্তাই নয়, বাংলার মিষ্টি খেতে তিনি ভালোবাসেন বলে, মিষ্টি এবং নানান রকম উপহার আসে 'দিদি'-র তরফ থেকে।

সাম্প্রতিক কালে, বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মোদি-মমতা রাজনৈতিক তিক্ততা বেশ খানিকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলার জনসভামঞ্চে দাঁড়িয়ে মমতাকে 'ও দিদি' বলে কটাক্ষের সুরে সম্বোধন, রাজনীতিতে নেতিবাচক ইঙ্গিত ফেলে। এরপর আলাপন বন্দোপাধ্যায়কে নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য টানাটানি, নারদা মামলা এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনখরকে নিয়ে বিবাদ কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের সম্পর্ককে আরও বেশি জটিল করে তোলে।