Coronavirus Scare In India: করোনা আক্রান্ত পড়ুয়ার জন্মদিনে আমন্ত্রিত সহপাঠীরা, খবর প্রকাশ্যে আসতেই স্কুলে পড়ল তালা
মাস্ক পরে স্কুলে পড়ুয়ারা (Photo Credit: PTI)

লখনউ, ৩ মার্চ: করোনাভাইরাসের আতঙ্কে কাবু উত্তরপ্রদেশ (Coronavirus Scare in India)। দিল্লিতে এক রোগীর শরীরে সিওভিআইডি-১৯–এর প্রমাণ মিলেছে। রক্তের নমুনাতে করোনার জীবাণু মেলার পরেও সেই রোগী শুক্রবার নিজেরই জন্মদিনের পার্টির আয়োজন করে। আক্রান্ত কিশোর নয়ডার এক স্কুলের পড়ুয়া। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই করোনাভাইরাসের আতঙ্কে রীতিমতো দিশেহারা ওই স্কুলের পড়ুয়া ও তাদের অভিভাবকরা। কেননা সংবাদ মাধ্যম নিউজ ১৮ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, বার্থডে বয় আসলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। সে নয়ডার স্কুলের পড়ুয়া। জন্মদিনের পার্টিতে সহপাঠীদের আমন্ত্রণ করেছিল। এরপরই ওই স্কুলটিতে অনিদির্ষ্ট কালের জন্য তালা পড়েছে। তবে ওই পার্টিতে স্কুলের বন্দুরা ছাড়া আর কোনও বাচ্চা গিয়েছিল কি না তা জানার চেষ্টা চলছে।

আতঙ্কের খবর পেয়েই উত্তরপ্রদেশের স্বাস্থ্য আধিকারিকরা ওই স্কুলে পৌঁছেছেন। প্রত্যেক পড়ুয়ার সিওভিআইডি-১৯ পরীক্ষা হয়েছে। জন্মদিনের পার্টিতে করোনা আক্রান্ত রোগীও অন্যদের সঙ্গে উপস্থিত ছিল। এদিকে সোমবারই প্রথম দিল্লিতে ও তেলাঙ্গানায় দুই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর হদিশ মিলেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে এই খবর মিলেছে। দিল্লির করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি ইটালিতে গিয়েছিলেন। এখন তাঁর শরীরে সিওভিআইডি-১৯ এর জীবাণু মেলায় আরএমএল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একটা জিনিস মনে রাখতে হবে যে করোনাভাইরাসের গ্রাসে চলে গিয়েছে ইতালি। সেখানেও প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। অন্যদিকে তেলেঙ্গানার করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি দুবাইতে গিয়েছিলেন। আরও পড়ুন-Ranji Trophy 2019–20: ইডেনেই ঘায়েল কর্ণাটক, ১৩ বছরের খড়া কাটিয়ে রঞ্জি ফাইনালে বাংলা

এদিকে পরিস্থিতির গুরুত্ব বিচার করে এয়ার ইন্ডিয়া ২৫ ফেব্রুয়ারির দিল্লি ভিয়েনা ফ্লাইটের ক্রু মেম্বারদের ১৪ দিনের জন্য বাড়িতেই আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। ভারতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দিল্লির বাসিন্দার শরীরে মারণ রোগের জীবাণুর সন্ধান মিলতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কেননা ওই রোগী ভিয়েনা থেকে দিল্লিতে আসতে এয়ার ইন্ডিয়ার ২৫ তারিকের ফ্লাইট ধরেছিলেন। এখন থেকে ভারতীয় বিমানবন্দর গুলিতে ইরান ও ইতালি থেকে আসা যেকোনও যাত্রীর স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগে শুধু চিন, হংকং, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, নেপাল, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম মালয়েশিয়া ও জাপান এই তালিকায় ছিল।