Jisshu Sengupta: ‘ইন্ডাস্ট্রিতে নেপোটিজম আছে, ছিল এবং থাকবেও’, যীশু সেনগুপ্ত
যীশু সেনগুপ্ত (Photo Credits: IANS)

শুধুমাত্র স্টার কিড হলেই জনপ্রিয় হওয়া যায় না। ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে হলে প্রতিভার প্রয়োজন রয়েছে, সঙ্গে ভাগ্যও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। এমনটাই মনে করেন টলিউডের প্রতিভাবান অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত (Jishu Sengupta)। সম্প্রতি বলিউড অভিনেত্রী বিদ্যা বালনের সঙ্গে একটি ওয়েব সিরিজে “শকুন্তলা দেবী” –তে অভিনয় করেছেন তিনি। তিনি এদিন বলেন, “নেপোটিজম নিয়ে মানুষ কেন এত বেশি আলোচনা করছে আমি সত্যি জানি না। নেপোটিজম ইন্ডাস্ট্রিতে সবসময় ছিল, থাকবেও। আমার মেয়ে ইতিমধ্যেই একটা ছবিতে অভিনয় করেছে। সে সত্যিই খুব ছোট, তবে ভাল অভিনেত্রীও বটে। যদি সে অভিনয়কেই ভবিষ্যতে বেছে নেয়, আর আমি তাকে সহযোগিতা করি, তবে সেটা ভুল?”

এই প্রসঙ্গে আইএনএস-কে যীশু বলেন, “আমি তার জন্য টাকা খরচ করতে পারি, আসলে খরচ করতে চাই। যদি আমি আমার মেয়েকে সমর্থন করি। যদি মনে করি অভিনয়ের হাত ধরে সে একদিন স্বনামধন্য হবে। আর সেকারণে তার সঙ্গে কোনও ছবিতে অভিনয় করি। তাহলে এর মধ্যে ভুলটা কোথায়? আমি অন্তত মনে করি না যে এর মধ্যে কোনও সমস্যা রয়েছে। আমি জানি না এটি নেপোটিজম কি না তবে মেয়েকে তো সহযোগিতা করবই। তবে সবার আগে তাকে প্রতিভার প্রমাণ রাখতে হবে। ভাল অভিনেত্রীয় হতে হবে। তাহলেই সহযোগিতা করব। কারোর সঙ্গে যদি এক্ষেত্রে বাজে কিছু ঘটনা ঘটে তাহলে অবশ্যই প্রতিবাদ করুন। তবে এক জনের জন্য বাকিদের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলা ততক্ষণ উচিত নয়, যতক্ষণ আপনার কাছে সেই অভিযোগের কোনও সুনির্দিষ্ট প্রমাণ নেই। অন্তত আমি তাই মনে করি।” আরও পড়ুন-Ram Temple Bhoomi Pujan: রাম মন্দিরের ভূমি পুজোয় ত্রেতাযুগে অযোধ্যা! হলুদ রঙে রেঙেছে সমস্ত বাড়ি

বাংলা ছবিতে দারুণ কাজ করার পাশাপাশি বলিউডেও সাড়া জাগানো অভিনয় করে ফেলেছেন যীশু সেনগুপ্ত। তাঁর অভিনীত ছবির মধ্যে রয়েছে, ‘মর্দানি’, ‘মণিকর্নিকা: দ্য কুইন অফ ঝাঁসি’, ‘পিকু’, ‘বরফি’। তিনি কি কখনও কোনওরকম বৈষম্যের শিকার হয়েছেন? এর উত্তরে যীশু জানান, “প্রায় এক দশক ধরে বাংলায় আমাকে দুর্ভাগ্যবান অভিনেতা বল হত। তবে আমি হাল ছেড়ে দিইনি। আমার অনুমান  এখন নিশ্চয় সেই সব প্রযোজকদের লগ্নির টাকা কাজের মধ্যে দিয়ে ফেরত দিতে পেরেছি। দেখার দৃষ্টিভঙ্গি অনুযায়ী ঘটনা বদলে যায়। অল্পবয়সে একবার আমায় প্রতিশ্রুতি দেওয়া হল যে বড়মাপের পরিচালকের সঙ্গে বিগবাজেটের ছবিতে কাজ করার সুয়োগ পাবে। উৎসাহ নিয়ে বসে আছি। যখন পোস্টার রিলিজ করলে দেখলাম আমি সেখানে নেই। আমি তাতে ভেঙে পড়িনি। ডিরেক্টররা এখন আমার আশপাশে ঘুরছে। আমি কিন্তু সেখানেই রয়ে গেছি।”

আজ অ্যামাজন প্রাইমে মুক্তি পাচ্ছে বিদ্যা বালন যীশু সেনহুপ্ত অভিনীত “শকুন্তলা দেবী”। এনিয়ে যীশু বলেন, “বিদ্যা বালনের সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে তাঁর অনেক দিনের। অভিনেত্রী বিদ্যা বালনের বিরাট ভক্ত ছিলাম। এখন তো মানুষ বিদ্যা বালনেরও অনুরাগী হয়ে পড়েছি। বিদ্যা একজন ভাল মনের মানুষ  সেটে আমরা অনেক আনন্দ করেছি। এককথায় পরস্পরের বন্ধু হয়ে উঠেছি। যেভাবে বিদ্যা জীবনকে দেখেন তা আমার কাছে অনুপ্রেরণার মতো। সবকিছুর প্রতি সবসময় ইতিবাচক বিদ্যা বালন।”