Axone Movie Review: বর্ণ-জাতি-বৈষম্য, সবকে ছাপিয়ে যায় বন্ধুত্ব! অ্যাক্সওয়ান গল্প এমনই এক অসম্ভবের
Axone Movie Review. Photo Source: You Tube

নিকোলাস খারকোঙ্গরের (Nicholas Kharkongor) পরিচালনায় এবং ইয়োডল ফিল্মের (Yoodlee Films) প্রযোজনায় অ্যাক্সওয়ান (Axone) ছবিটি মুক্তি পেল নেটফ্লিক্সে। ছবিটিতে অভিনয়ে রয়েছেন সায়নী গুপ্তা, লিন লৈশরাম, বিনয় পাঠক, রোশন যোশী এবং ডলি আলুওয়ালিয়া। ২ অক্টোবর, ২০১৯-এ ছবিটি লন্ডন ফিল্ম ফেস্টিভেলে প্রিমিয়ার হয়। সম্প্রতি কোনও হিন্দি ছবি এতটা প্রশংসিত হয়নি বিদেশে। লকডাউনে দেখে ফেলুন ছবিটি নেটফ্লক্সে (Netflix)।

লকডাউনে যখন চারিদিকে টালমাটাল পরিস্থিতি, তখন এই ছবিটি দেখে আপনার হাওয়া বদল নিশ্চিত। দুই নারীকে কেন্দ্র করেই ছবির গল্প, বন্ধুর বিয়ের রাতে নাগা-স্পেশাল মেনু তৈরির পরিকল্পনা করে তাঁরা। কিন্তু সমস্যা হল তাঁরা থাকেন দক্ষিণ দিল্লিতে এবং বিদঘুটে গন্ধে অতীষ্ট হয়ে যায় এলাকাবাসীরা। এরপর আসা যাক ছবির মূল গল্পে, কাউকে পাত্তা না দিয়ে শুধুমাত্র নিজের ইচ্ছেপূরণ কীভাবে সম্ভব সেটাই দেখানো হয়েছে ছবির প্রতিটি পরতে পরতে। ছবিতে দেখানো হয়, কীভাবে একটা সুস্থ সমাজ শুধুমাত্র বর্ণ এবং জাতিগত ভেদাভেদের কারণেই অসুস্থ হয়ে ওঠে এবং তার ফল ভোগ করে সব্বাই। নাগা রেসিপি রীতিমতো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায় দু’জনের কাছে এবং তা বানাতে গিয়ে তাদের কর্মকাণ্ড দেখে হাসিতে পেট ব্যাথা হওয়ার যোগাড়। নিজেদের মধ্যে ঝগড়া হয়, বচসা হয় কিন্তু একে অপর কতটা কাছের, সেটাই প্রকাশ পায় লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে।

ছবিটি নি:সন্দেহে দমফাটানো হাসির, বিশেষ করে প্রতিবেশী শিবের রোল দুর্দান্ত। বর্ণবিদ্বেষ সিনেমার বিষয় হলেও পুরো ছবিটি দর্শকদের মন ছুঁয়ে যাওয়ার মত। বর্ণবিদ্বেষের মধ্যেও দুই বন্ধুর মধ্যে সম্পর্ক কেমন হতে পারে, তারই একটি শিক্ষা দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে ছবিতে।

হাসি-কান্না-আনন্দ-দু:খ, জীবনের লড়াই সব মিলিয়ে অন্ধকার থেকে আলোর দিকে যাওয়ার রাস্তা দেখিয়েছে ছবিটি।