West Bengal Municipal Elections 2022 Results Live Update: চার পুরনিগমের ভোটে তৃণমূলের জয়জয়কার, এই জয় মানুষের জয় বললেন মমতা, শিলিগুড়িতে অশোক ভট্টাচার্যের হার-মেয়র হচ্ছেন গৌতম দেব
Mamata Banerjee, TMC. (Photo Credits: Twitter)

কলকাতা, ১৪ ফেব্রুয়ারি:  শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্যের চার পুরনিগমের ভোট গণনা। আজ, সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিধাননগর (Bidhan Nagar), চন্দননগর (Chandan Nagar), আসানসোল (Asansol) ও শিলিগুড়ি (Siliguri) পুরনিগমের ভোট গণনার শুরু থেকেই অনেকটা এগিয়ে তৃণমূল, বিরোধীদের প্রায় খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে  না। দু চারটি ওয়ার্ড ছাড়া এই চার পুরনিগমের সবকটিতেই তৃণমূল প্রার্থীরা এগিয়ে।

গণনার ট্রেন্ড যেদিকে চলছে, তাতে কলকাতা পুরসভার মত ওই চার পুরনিগমে শুধু তৃণমূলের দখলে থাকছে তাই নয়, জোড়াফুলের একাধিপত্য থাকছে। আরও পড়ুন: 

মেদিনীপুরে রেললাইনে দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার সময় ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু ২ জনের

দেখুন লাইভ আপডেট

  • আসানসোল পুরসভা দখল করল তৃণমূল। ইতিমধ্যেই ৫৬টি ওয়ার্ডে জিতে গিয়েছে রাজ্যের শাসক দল।
  • বিধাননগরে ৪১টি ওয়ার্ডেরই ফল ঘোষিত। ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৯টি-তে জয়ী তৃণমূল, একটিতে জয়ী কংগ্রেস, একটিতে জয়ী নির্দল প্রার্থী।
  • শিলিগুড়িতে মেয়র হচ্ছেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম  দেব। ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। গৌতম দেব নিজের ওয়ার্ড থেকে জেতেন ৩ হাজার ভোটে। অন্যদিকে, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে হেরে যান বামেদের মুখ তথা প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য।
  • চার পুরনিগমে তৃণমূলের বড় জয় নিশ্চিত হতেই অভিনন্দন বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চার পুরনিগমে তৃণমূলের জয়কে আসলে মানুষের জয় হিসেবে অ্যাখা দিয়েছেন মমতা। পাশাপাশি দিদি বলেন, উত্তরবঙ্গে বিধানসভা ভোটে বিজেপি জিতলেও দার্জিলিং থেকে কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, দুই দিনাজপুরে কিছুই করেনি বিজেপি। শান্তিপূর্ণ ভাবে মানুষ ভোট দিতে পেরেছেন। তাতে আমরা জিতেছি। আমরা সত্যি খুশি।
  • আসানসোলে ১০৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৫১টি-র ফল প্রকাশিত হল। ৪৫ ওয়ার্ডে জয়ী তৃণমূল, ৪টি আসনে জয়ী বিজেপি, ১টি করে আসনে জয়ী কংগ্রেস ও বাম প্রার্থীরা। এছাড়াও ১টি আসনে জয় অমীমাংসিত রয়েছে।
  • বিধাননগরে ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৯টি-তে এগিয়ে তৃণমূল, ১টি-তে কংগ্রেস ও বাকি একটিতে এগিয়ে নির্দল প্রার্থী। কোনও ওয়ার্ডেই বাম-বিজেপি প্রার্থীরা এগিয়ে নেই।
  • চন্দননগর পুরনিগমের ১৮টি ওয়ার্ডের ফল  প্রকাশিত হল। ১৭টি-তে জয়ী তৃণমূল, একটিতে জয়ী বামেরা। বিজেপি প্রার্থীরা বেশিরভাগ ওয়ার্ডে তৃতীয় স্থানে।
  • চার পুরনিগমেই মেয়র পদপ্রার্থীরা জিতলেন। শিলিগুড়ি পুরনিগমে নিজের ওয়ার্ডে ৩ হাজার ভোটে জয়ী প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম দেব।
  •  শিলিগুড়ির পুরনিগমের ৬  নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত সিপিএম প্রার্থী তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী-মেয়র অশোক ভট্টাচার্য 
  • আসানসোল- ১০৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৫৫টি-তে গণনার প্রাথমিক ট্রেন্ড এসেছে। তৃণমূল এগিয়ে ৫৩টি, বিজেপি ১টিতে, অন্যান্যরা এগিয়ে ১টিতে। ২০১৫ আসানসোল পুরনিগমের ভোটে তৃণমূল ৭৪টি ওয়ার্ডে জিতেছিল, বামেরা পেয়েছিল ১৭টি ওয়ার্ড, বিজেপি পায় ৮টি আসন, কংগ্রেস ৩টি ওয়ার্ডে জিতেছিল।
  • বিধাননগর পুরনিগম -৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৯টিতে এগিয়ে তৃণমূল। বেশিরভাগ ওয়ার্ডেই তৃণমূল প্রার্থীরা বড় ব্যবধানে এগিয়ে। ১টি ওয়ার্ডে এগিয়ে কংগ্রেস, ১টি-তে এগিয়ে বাম প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থীরা কোন ওয়ার্ডে এগিয়ে নেই, বেশ কিছু ওয়ার্ডে তৃতীয় স্থানে। গতবার তৃণমূল ৩৭টি ওয়ার্ডে জিতেছিল, বামেরা জিতেছিল ২টিতে, আর কংগ্রেস পেয়েছিল ২টি আসন। বিজেপি গত বিধাননগর পুরভোটে কোনও ওয়ার্ডে জিততে পারেনি।
  • শিলিগুড়ি- শিলিগুড়ি পুরনিগমে মোট আসন ৪৭টি। গণনার প্রাথমিক ট্রেন্ড আসতে শুরু করেছে ১৬টি ওয়ার্ডে। তার মধ্যে তৃণমূল এগিয়ে ১১টি-তে, বাম ও বিজেপি প্রার্থীরা দুটি করে ওয়ার্ডে এগিয়ে। কংগ্রেস এগিয়ে ১টিতে। গতবার বামফ্রন্ট ২৩টি ওয়ার্ডে জিতেছিল, তৃণমূল পায় ১৭টি-তে, কংগ্রেস ৪টি ও অন্যান্যরা ১টি-তে জিতেছিল।
  • চন্দননগর- হুগলির এই জেলার পুরনিগমে মোট আসন ৩৩টি। তৃণমূল এগিয়ে আছে ১৯টিতে, বামফ্রন্ট এগিয়ে ১টিতে, বিজেপি ও কংগ্রেস কোনও ওয়ার্ডে এগিয়ে নেই।