Madan Mitra: ভবানীপুর ভোটে জিততেই হবে মমতা ব্যানার্জিকে, প্রিয় দিদির জন্য মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরে পুজো দিলেন মদন মিত্র
Madan Mitra (Photo Credit: Madan Mitra/Facebook)

কলকাতা, ১২ সেপ্টেম্বর: মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) -র সঙ্গে মদন মিত্র (Madan Mitra) সম্পর্কটা ভারী মধুর। দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত সঙ্গী মদনকে নানা সময় বড় পুরস্কার দিয়েছেন, বকাও দিয়েছেন, আবার খুঁনসুটিও করেন মমতা। ক দিন আগেই মমতা যেমন এক অনুষ্ঠানে মদনকে খুব বেশি সাজুগুজো করতে বারণ করছিলেন মজা করে। সেই মমতা আবার ভোটযুদ্ধে। নন্দীগ্রামে (Nandigram) দাঁড়িয়ে নিজে সামান্য ব্যবধানে হারলেও গোটা রাজ্যে একা হাতে অসম্ভব কঠিন এক যুদ্ধে জয় ছিনিয়ে এনেছেন মমতা। সেই মমতাকে এবার মুখ্যমন্ত্রী থাকতে হলে ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে (Bhabanipur Vidhan Sabha constituency By Poll) জিততেই হবে। তৃণমূল নেতা-কর্মীরা একেবারে পূর্ণশক্তিতে দিদিকে জেতাতে ভবানীপুরে ময়দানে নেমেছেন।

বাকিদের মত দিদিকে জেতাতে মদন মিত্রও খাটছেন। তবে তিনি বাকিদের থেকে বরাবরই একটু আলাদা করেন। ঠাকুরে বিশ্বাসী মদন, দিদিকে জেতাতে ভগবানের দোয়ারে গেলেন। ভোটে প্রিয় দিদিকে জেতাতে একেবারে মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরে পুজো দিলেন কামারহাটির তারকা বিধায়ক। আরও পড়ুন: কাল মনোনয়ন পেশ করছেন ভবানীপুরে বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রাওয়াল, দিদিকে খালি জমি ছাড়তে নারাজ

রবিবার জগন্নাথ মন্দিরে পুজো দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর জন্য আশীর্বাদ চাইলেন মদন মিত্র। পুজো দিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী জানালেন, "ঠাকুরের কাছে বললাম মমতাকে শক্তি দাও, তাঁকে সুস্থ রাখো যাতে তিনি দুয়ারে রেশন, দুয়ারে সরকার নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারেন।" তার পর জোর গলায় বললেন, "দিদির জয় নিয়ে কোনও সংশয় নেই। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ-দের স্টার ক্যাম্পেনার থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিজেপি।" সঙ্গে মদন ছড়া কেটে বলেন, ভবানীপুর থেকে কামারহাটি, লক্ষ্য এবার দেশের মাটি। মমতার হাত ধরে সামনে হাঁটি, দিল্লি হবে বাংলার ঘাঁটি।

মমতা ইতিমধ্যেই ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মমতাকে জেতাতে রাজ্যের মন্ত্রী-সাংসদ-বিধায়ক, সেলেবদের প্রচার নামাচ্ছে তৃণমূল। বিজেপি এই কেন্দ্রে প্রার্থী করছে প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালকে। যিনি এর আগে দু বার ভোটে দাঁড়িয়ে, দুবারই হেরেছেন। কংগ্রেস এখানে প্রার্থী দেয়নি। সিপিএমের প্রার্থী শ্রীজীবী বিশ্বাস। ভবানীপুরে ভোট ৩০ সেপ্টেম্বর, ফলপ্রকাশ ৩ অক্টোবর।